Press "Enter" to skip to content

বাংলা সহ পাঁচটি রাজ্যে নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা কমিশনের

শেয়ার করুন -

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ জাতীয় নির্বাচন কমিশন আজ পশ্চিমবঙ্গ, অসম, তামিলনাড়ু, কেরল আর পদুচেরি বিধানসভার নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করবে। নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে আজ বিকেল ৪ঃ৩০ মিনিট থেকে একটি প্রেস কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়েছে। যেই রাজ্য গুলোর নির্বাচন হতে চলেছে, তাঁর মধ্যে শুধু অসমেই ভারতীয় জনতা পার্টির সরকার আছে। নির্বাচন কমিশন অনুযায়ী, তামিলনাড়ুতে ২৪ মে, বাংলার ৩০ মে, অসমে ৩১ মে, পদুচেরিরে ৮ জুন আর কেরলে ১ জুন ২০২১ এ সরকারের কার্যকাল সমাপ্ত হচ্ছে।

মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল আরোরা জানান, সমস্ত নির্বাচন আধিকারিক/কর্মী করোনা যোদ্ধা। করোনার কারণে সমস্ত ভোট কর্মী/আধিকারিকদের করোনা টিকা দেওয়া হবে। তিনি জানান, বাড়ি বাড়ি প্রচারে যেতে পারবেন মাত্র ৫ জন। তিনি জানান, ২০২১ পশ্চিমবঙ্গে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়িয়ে ১,০১,৯১৬ টি করা হচ্ছে। ভোট দানের সময় আরও এক ঘণ্টা বাড়ানো হবে।

সুনীল অরোরা জানান, মনোনয়ন জমা দেওয়ার সময় প্রার্থীর সঙ্গে থাকতে পারবেন মাত্র ২ জন। পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনের জয় দুজন বিশেষ পুলিশ অবজার্ভার থাকবেন। মৃণাল কান্তি দাস ও বিবেক দুবে পুলিশের অবজার্ভার। এবার অনলাইনেও দেওয়া যাবে মনোনয়ন পত্র। বাংলার স্পর্শকাতর বুথ গুলোকে চিহ্নিত করা হয়েছে। রাজ্যে ইতিমধ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী পাঠানো হয়েছে। রাজ্যে ২০১৬-এর তুলনায় ৩১.৬৫ শতাংশ বুথের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে। ভোট কেন্দ্রগুলোতে CCTV-র নজরদারি চলবে।

তিনি জানান, বোর্ড পরীক্ষার কথা মাথায় রেখে পরীক্ষার দিনগুলোতে ভোট রাখা হচ্ছে না। পশ্চিমবঙ্গের জন্য আয়-ব্যয় পর্যবেক্ষক বি. মুরলিকুমার। পশিমবঙ্গ নির্বাচনে বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক। সুনীল অরোরা জানান ২ মে পাঁচটি রাজ্যের নির্বাচনের গণনা হবে। অসমে তিন দফায় ভোট হবে। প্রথম দফা ২৭ মার্চ। দ্বিতীয় দফা ১ এপ্রিল আর তৃতীয় এবং শেষ দফা ৬ এপ্রিল।

কেরলে ১ দফায় ১৪০ টি আসনে ভোটগ্রহণ। কেরলে ৬ এপ্রিল ভোটগ্রহণ হবে। তামিলনাড়ুতে ১ দফায় ২৩৪ টি আসনে ৬ এপ্রিল ভোটগ্রহণ। পদুচেরিতে এক দফায় ৬ এপ্রিল ভোটগ্রহণ হবে।

পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফায় ভোট। প্রথম দফা ২৭ মার্চ ভোট হবে ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব মেদিনীপুর। দ্বিতীয় দফা ১ এপ্রিল। তৃতীয় দফা ৬ এপ্রিল। চতুর্থ দফা ৪৪ টি আসন ১০ এপ্রিল। পঞ্চম দফা ১৭ এপ্রিল। ষষ্ঠ দফা ২২ এপ্রিল। অষ্টম দফা ২৯ এপ্রিল।