নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

তৃণমূল শান্তিপ্রিয় দল তাই প্রার্থী তালিকা নিয়ে ক্ষোভ নেই, কিন্তু বিজেপির সবাই আগুন লাগাচ্ছেঃ অভিষেক

বিনপুরঃ আজ ঝাড়গ্রামে নির্বাচনী প্রচারে গিয়েছেন তৃণমূলের যুব নেতা তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। ঝাড়গ্রামের বিনপুর বিধানসভা আসনে দলীয় প্রার্থীর প্রচারে জনসভা করেন তিনি। সেখান থেকে বিজেপির বিরুদ্ধে একের পর এক তোপ দাগেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বিজেপিকে আক্রমণ করে বলেন, ২০১৯ থেকে ২০২১ দ’বছর সাংসদ থাকার পরেও বিজেপির সাংসদরা এলাকায় একটা ল্যাম্প পোস্টও লাগায় নি।

তিনি কেন্দ্রের মোদী সরকারকে আক্রমণ করে বলেন, সাত বছর ক্ষমতায় থাকার পরেও মোদী সরকার কোন কাজ করেছে সেটার রিপোর্ট দেয়নি। তিনি বলেন, আমাদের নেত্রী সবার বাড়িতে বাড়িতে তৃণমূল সরকারের কাজের খতিয়ান তুলে ধরে রিপোর্ট কার্ড পাঠিয়ে দিয়েছেন। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, কেন্দ্রীয় নেতারা উনিশে আপনাদের কাছে ভোট চাইতে এসেছিল, আর দুবছর পর আবার এখন আসছে। মাঝে দু’বছর আসেনি কেন?

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির প্রার্থী তালিকা ঘোষণার কথা উল্লেখ করে বলেন, গতকাল বিজেপি প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে। আর এরপর থেকে চারিদিকে আগুন জ্বালাচ্ছে বিজেপির কর্মীরা। নিজেদেরই পার্টি অফিসে আগুন লাগাচ্ছে ওঁরা। রাস্তা অবরোধ করছে, টায়ার জ্বালাচ্ছে। তিনি বলেন, নিজেদের মধ্যেই যেই দল প্রার্থী তালিকা নিয়ে শান্তি বজায় রাখতে পারেনা, তাঁরা আবার বাংলায় শান্তি বজায় রাখবে। এরথেকে হাস্যকর কিছু হতে পারে না। তিনি বলেন, আমরা প্রার্থী ঘোষণা করেছি। কিন্তু কোথাও অশান্তি নেই। এটাই তৃণমূল কংগ্রেস আর বিজেপির মধ্যে পার্থক্য।

বলে রাখি, তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী ঘোষণার পর গোটা রাজ্য জুড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীদের মধ্যে বিক্ষোভ দেখা গিয়েছিল। ভাঙড়ের তৃণমূল নেতা আরাবুল ইসলাম নিজের অনুগামীদের নিয়ে গিয়ে নিজেরই অফিসে ভাঙচুর চালিয়েছিলেন। এছাড়াও জেলায় জেলায় তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীদের মধ্যে প্রার্থী তালিকা নিয়ে বিক্ষোভ দেখা গিয়েছিল। এমনকি তৃণমূলের অনেক প্রার্থীকেই বহিরাগত আখ্যা দিয়ে মেনে নিতে চান নি দলেরই একাংশ।

Related Articles

Back to top button