নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

কয়লা-গরু পাচারকাণ্ডে ৯০০ কোটি টাকা কামানোর অভিযোগের পর মুখ খুললেন অভিষেক ব্যানার্জী

কলকাতাঃ কয়লা আর গরু পাচার কাণ্ডে বারবার বিজেপির নিশানায় আসছেন তৃণমূলের যুব নেতা তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার একটি সাংবাদিক বৈঠক করে বিজেপির নেতা শুভেন্দু অধিকারী এবং দীনেশ ত্রিবেদী একটি অডিও ক্লিপ ফাঁস করেন এবং অভিযোগ করেন যে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ৯০০ কোটি এই পাচার কাণ্ড থেকে তুলেছিল। এরপরই রাজনৈতিক মহলে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। যদিও তৃণমূলের তরফ থেকে সমস্ত অভিযোগ খারিজ করে দেওয়া হয়।

বিজেপির অভিযোগের ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই গরু ও কয়লা পাচার কাণ্ডে প্রথমবার মুখ খুললেন তৃণমূলের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি পরপর কয়েকটি ট্যুইট করে লেখেন, ‘কয়লা বিষয়ক সমস্ত সম্পদ কেন্দ্রের অধীনে আসে। কেন্দ্রের এজেন্সি গুলোই সবকিছুর তথ্য রাখে। বিজেপির নেতারা যদি মনে করেন তৃণমূলের কেউ কয়লা পাচার করে টাকা পেয়েছে, তাহলে এই সম্পদ রক্ষা করার দায়িত্ব যাদের হাতে রয়েছে, তাঁদের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে কে বাধা দিচ্ছে কেন্দ্রীয় এজেন্সি গুলোকে?”

আরেকটি টুইট করে তৃণমূলের সাংসদ লেখেন, ‘সবথেকে হাস্যকর হল কয়লা আর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অফিসাররা তাঁদের বসের কথা না শুনে তৃণমূলের কথা শুনছে। বিজেপি কাদের বোকা বানাতে চাইছে?” অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এখানে বস বলতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে বুঝিয়েছেন। তিনি নিজের টুইটে এটা বলতে চেয়েছেন যে, কয়লা পাচার কাণ্ডের দায় সরাসরি কেন্দ্র সরকারের।

Related Articles

Back to top button