নতুন খবরভারতবর্ষ

দীপাবলির আগে বৈদেশিক মুদ্রা ভাণ্ডারে অভূতপূর্ব উত্থান, ১ সপ্তাহে বাড়ল আট বিলিয়ন ডলার

নয়া দিল্লীঃ দিপাবলীর আগে বৈদেশিক মুদ্রা ভাণ্ডার নতুন রেকর্ড কায়েম করেছে। ৬ নভেম্বর শেষ হওয়া সপ্তাহে বৈদেশিক মুদ্রা ভাণ্ডার ৫৬৮.৪৯ বিলিয়ন ডলারের নতুন স্তরে পৌঁছে গিয়েছে। এক সপ্তাহে প্রায় ৭.৭৭ বিলিয়ন ডলারের বাম্পার বৃদ্ধি পেয়েছে বৈদেশিক মুদ্রা ভাণ্ডার। RBI দ্বারা শুক্রবার জারি করা পরিসংখ্যানে এই তথ্য পাওয়া গিয়েছে। গত ৩০ অক্টোবর সমাপ্ত সপ্তাহে দেশে বৈদেশিক মুদ্রার ভাণ্ডার ১৮.৩ কোটি ডলার বেড়ে ৫৬০.৭১৫ বিলিয়ন ডলার ছিল। সেটা এখন নতুন রেকর্ডে পৌঁছেছে।

এই সময়কালে, বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বৃদ্ধির মূল কারণ বৈদেশিক মুদ্রার সম্পদ বৃদ্ধি। সম্পদগুলি মোট বৈদেশিক মুদ্রার ভাণ্ডারের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। রিজার্ভ ব্যাংকের তথ্য অনুসারে, এফসিএ এ সময়ে $ 6.403 বিলিয়ন ডলার বেড়ে 522.742 বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে। এফসিএ ডলার হিসাবে বলা হয়, তবে অন্যান্য বিদেশী মুদ্রা যেমন ইউরো, পাউন্ড এবং ইয়েনও অন্তর্ভুক্ত এতে।

নিউজ এজেন্সি পিটিআই অনুসারে, ৬ নভেম্বরের সপ্তাহে দেশের স্বর্ণ ভাণ্ডার ১.৩২৮ ডলার বেড়ে ৩৭.৫৮৭ বিলিয়ন ডলার হয়ে গিয়েছে। দেশের আন্তর্জাতিক মুদ্রাকোষে পাওয়া বিশেষ উইথড্রল অধিকার ৭০ লক্ষ ডলার বেড়ে ১.৪৪৮ বিলিয়ন ডলার হয়ে গেছে। আরেকদিকে, একই সময় দেশে আইএমএফের কাছে জমা মুদ্রা ভাণ্ডার চার কোটি ডলার বেড়ে ৪.৬৭৬ বিলিয়ন ডলার হয়ে গিয়েছে।

বিদেশী মুদ্রা ভাণ্ডারে বৃদ্ধি যেকোনো দেশের অর্থনীতির জন্য সুখবর। সেখানে কারেন্সি হিসেবে অধিকতর ডলার থাকে। ডলারের মাধ্যমে গোটা বিশ্বের সাথে ব্যবসা করা হয়। এই বিদেশী মুদ্রা ভাণ্ডার বেড়ে যাওয়া মানে, আমাদের দেশ এখন আরও বেশি আমদানি করতে পারবে।

Related Articles

Back to top button