নতুন খবরভারতবর্ষ

দেশে শিক্ষা ব্যবস্থা খারাপ করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে বামেরা! ২০৮ শিক্ষাবিদের চিঠি প্রধানমন্ত্রী মোদীকে

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সমেত দেশের ২০০ এর বেশি শিক্ষাবিদেরা রবিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখে দেশের খারাপ হতে চলা শিক্ষার মহলের জন্য বাম আর বাম বিচারধারার সাথে যুক্ত মানুষদের দায়ী করলেন।

চিঠিতে দাবি করা হয় যে, বামেদের অ্যাক্টিভিস্ট মণ্ডলী দেশের শিক্ষার মহলকে খারাপ করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। তাঁরা লেখেন, আমরা এই কথাতে নিরাশ যে ছাত্র রাজনীতির নামে এক বিঘটনকারী বামপন্থী অ্যাজেন্ডাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সম্প্রতি জেএনইউ থেকে জামিয়া পর্যন্ত এএমইউ থেকে যাদবপুর ক্যাম্পাসে হয়ে যাওয়া ঘটনা নিয়ে শিক্ষিত মহল খুবই চিন্তিত। তাঁদের মতে বাম মতাদর্শে দর্শিত সংগঠন গুলো আন্দোলনের নামে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে প্রশ্নের মুখে ফেলছে।

আধিকারিক সুত্র অনুযায়ী, চিঠিটিতে দেওয়া বয়ানে স্বাক্ষরকর্তাদের মধ্যে হরি সিং গৌর আর গৌর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আরপি তিওয়ারি। দক্ষিণ বিহার কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এইচসিএস রাঠৌর আর সর্দার প্যাটেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য শিরীষ কুলকর্নির নাম আছে। শিক্ষিত সংস্থান দ্বারা বামেদের অরাজাকতার বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে এই শিক্ষক সমেত মোট ২০৮ জন শিক্ষকের স্বাক্ষর আছে।

২০৮ জন সিক্ষাবিদের বয়ানকে শিক্ষাবিদদের সমর্থন রুপে দেখা হচ্ছে। নাগরিকতা সংশোধন আইন সমেত অনেক ইস্যুতে কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে বিরোধ প্রদর্শনের পর লেখা এই পত্রকে সরকারের তরফ থেকে বুদ্ধিজীবীদের এক অংশের সমর্থন জোটানোর চেষ্টা ধরা হচ্ছে। ওই চিঠিতে বাম সংগঠন গুলোকে কটাক্ষ করে বলা হয়েছে যে, বামপন্থি রাজনীতি দ্বারা লাগানো সেন্সরশিপের কারণে সার্বজনীন ভাবে কিছু বলা আর কোন সার্বজনীন কার্যক্রম করা মুশকিল হয়ে পড়েছে।

Back to top button
Close