Press "Enter" to skip to content

ভারত বেশি হাতিয়ার জমা করে নিচ্ছে, আমাদের কি হবে! রাফালের আতঙ্কে বিশ্ব মঞ্চে গেলো পাকিস্তান

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ ভারতীয় বায়ুসেনার (Indian Air force) শক্তি কয়েকগুণ বাড়ানো রাফাল (Rafale) বিমান যখন ভারতের মাটিতে ল্যান্ড করে, তখন সেটির আওয়াজ আম্বালা এয়ারবেস থেকে ইসলামাবাদ (Islamabad) পর্যন্ত শোনা যায়। রাফাল ল্যান্ড করার শুধুমাত্র অপেক্ষা ছিল, তারপরেই পাকিস্তানে (Pakistan) আতঙ্কের মহলের সৃষ্টি হয়। পাকিস্তানি বিদেশ মন্ত্রালয় অভিযোগ করে বলেছেন যে, ভারত বাস্তবিক প্রতিরক্ষা সামগ্রীর প্রয়োজনের থেকে বেশি হাতিয়ার জমা করছে। পাকিস্তান আন্তর্জাতিক মঞ্চের কাছে দাবি জানিয়েছে যে, তাঁরা যেন ভারতকে হাতিয়ার জমা করার থেকে আটকায়।

পাকিস্তান বলেছে, এর ফলে দক্ষিণ এশিয়ায় হাতিয়ার জমা করার প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে যেতে পারে। পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রালয় জানিয়েছে যে, ভারত লাগাতার তাঁদের পরমাণু হাতিয়ারের সংখ্যা আর ক্ষমতা বাড়িয়ে চলেছে। পাকিস্তান জানিয়েছে যে, ভারতের এই কাজ আরও বড় সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। পাকিস্তান জানিয়েছে, ভারত এখন দ্বিতীয় সবথেকে বড় হাতিয়ার আমদানিকারক দেশ হয়ে গেছে। এটা দক্ষিণ এশিয়ায় রাজনৈতিক সম্পর্ককে খারাপ করতে পারে।

আরেকদিকে পাকিস্তানে রাফাল সংক্রান্ত তথ্যের জানার এতটাই হিড়িক পড়ে যায় যে, গুগলে রাফাল ট্রেন্ড করা শুরু করে দেয়। গুগল ট্রেন্ড অনুযায়ী, পাকিস্তানে কেউ রাফালের দাম জানার জন্য গুগল করছে, আবার কেউ বিশ্বের সবথেকে অত্যাধুনিক ফাইটার জেট কোনটা সেটা জানার জন্য বারবার গুগল সার্চ করছে। শুধু রাফালই না, পাকিস্তানিরা ভারতীয় বায়ুসেনাকে নিয়েও নানান তথ্য ইন্টারনেটে সার্চ করা শুরু করে দেয়।

পাকিস্তানের অনেকেই আবার ফাইটার জেট F-16 আর রাফালের মধ্যে পার্থক্য এবং কোনটি বেশি বিপদজনক সেটা নিয়ে সার্চ করে। আর পাকিস্তানিরা বুধবার এবং বৃহস্পতিবার গুগলে বারবার এই বিষয়ে সার্চ করে রেকর্ড সৃষ্টি করে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, এখনো গিলগিট-বালুচিস্তান, ইসলামাবাদ, সিন্ধু এবং পাঞ্জাব অঞ্চলে গুগলে রাফাল ট্রেন্ড করছে।

জানিয়ে দিই, রাফাল আসার পর পাকিস্তানে ঢুকে এয়ার স্ট্রাইক করার জন্য ভারতীয় বায়ুসেনার শক্তি অনেকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। ইরাক আর লিবিয়ায় নিজেদের যুদ্ধ কৌশলে মহারাত হাসিল করা রাফাল লড়াকু বিমানের সোজাসুজি মোকাবিলা আমেরিকায় নির্মিত F-16 জেটের সাথে হবে। বিশেষজ্ঞদের মতে, রাফাল লড়াইয়ে গেম চেঞ্জার হয়ে উঠবে আর এই বিমান ভারতের হাতে আসার পর পাকিস্তানের উপর চাপ আরও বাড়বে।