Press "Enter" to skip to content

‘কেয়ামত পর্যন্ত ওখানে মসজিদ ছিল, আছে আর থাকবে” সুপ্রিম কোর্টকে হুমকি ওয়াইসির!

শেয়ার করুন -

সর্বদা ঘৃণা ভরা বয়ানের জন্য বিতর্কে থাকা চন্দ্রাগুট্টার বিধায়ক আকবরউদ্দিন ওয়াইসি (Akbaruddin Owaisi) আরও একবার বিতর্কিত বয়ান দিয়ে শিরোনামে এলেন। একটি অনুষ্ঠানে উনি বলেন, মুসলিম পক্ষ সুপ্রিম কোর্টে রিভিউ পিটিশন দিচ্ছে, এরমানে এই যে, ৭০ বছর ধরে অন্যায় চলার পরেও ওরা ন্যায়ের উপর ভরসা করছে। এরপর ওয়াইসি বলেন, মুসলিমদের সাথে কোথায় কোথায় অন্যায় হয়নি? পড়াশুনা থেকে শুরু করে চাকরি আর অধিকার নিয়ে বরাবর মুসলিমদের সাথে অন্যায় হয়ে এসেছে। উনি বলেন, মুসলিমদের বস্তিতে স্কুল আর ব্যাঙ্কের বদলে সেখানে পুলিশ স্টেশন বানানো হয়। এটা অন্যায় না?

সুপ্রিম কোর্টের রায় নিয়ে কথা বলার সময় উনি রিভিউ পিটিশনের উল্লেখ করেন। আর এরপরই একপ্রকারে সুপ্রিম কোর্টকে হুমকি দিয়ে আকবরউদ্দিন ওয়াইসি বলেন, ‘কেয়ামত পর্যন্ত বাবরি মসজিদ ছিল, আছে আর থাকবে।” আপনাদের জানিয়ে রাখি, নভেম্বর মাসে হায়দ্রাবাদে ১৬ তম অতিরিক্ত মুখ্য মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত সৈদাবাদ পুলিশকে ২০১৯ এর জুলাই মাসে করিমনগরে একটি সার্বজনীন ভাষণে ঘৃণা ভরা বক্তব্য দেওয়ার জন্য আকবরউদ্দিন ওয়াইসির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার নির্দেশ দিয়েছিল।

শহরের এক আইনজীবী করুণাসাগর ১লা আগস্ট আদালতে আকবরউদ্দিন ওয়াইসির বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছিলেন। সেখানে অভিযোগ করা হয়েছিল যে, চন্দ্রগুট্টার বিধায়ক আকবরউদ্দিন ওয়াইসি করিমনগরের এনএন গার্ডেন ফাংশন হলে ২৩ জুলাই একটি সার্বজনীন সভা ‘জলসা-এ-ইয়াদ ফকর-এ-মিলান” এ ঘৃণা ভরা ভাষণ দিয়েছিলেন।

২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে আকবরউদ্দিন ওয়াইসি সেই সময় চর্চায় চলে আসেন, যখন উনি একটি জনসভায় ভাষণ দিতে গিয়ে বলেন, ১৫ মিনিটের জন্য পুলিশ তুলে নিলে আমরা ২৫ কোটি মুসলিম ১০০ কোটি হিন্দুদের দেখে নেব। এই মন্তব্যের পর গোটা দেশে ওনাকে নিয়ে নানান সমালোচনা হয়। কিন্তু এরপরেও উনি কোনদিনও নিজের ঘৃণা ভরা মন্তব্য বন্ধ করেননি।