Press "Enter" to skip to content

এমার্জেন্সিঃ কংগ্রেসকে নিশানা শাহ-এর, বললেন রাতারাতি দেশকে জেলখানা বানিয়ে দিয়েছিল ক্ষমতার লোভ

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ ভারতের (India) গণতন্ত্রের ইতিহাসে ২৫ জুন ১৯৭৫ (Emergency) একটি কালো দিন হিসেবেই পরিচিত। কারণ ১৯৭৫ সালে আজকের দিনে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর (Indira gandhi) কথামতো তৎকালীন রাষ্ট্রপতি ফখরুদ্দিন আলি আহমেদ গোটা দেশে এমার্জেন্সি ঘোষণা করেছিলেন। আজ সেই ঘটনার ৪৫ বছর পূর্ণ হল। আর আজকের এই দিনে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) বলেন, একটি পরিবার ক্ষমতার লোভে গোটা দেশে এমার্জেন্সি ঘোষণা করেছিল। আরেকদিকে, বিজেপির সভাপতি জেপি নাড্ডা বলেন, ভারত সেই মহান মানুষদের প্রমাণ জানায়, যারা এই অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছিলেন।

কংগ্রেসের বিরুদ্ধে আক্রমণ করে অমিত শাহ বলেন, ‘আজকের এই দিনে ৪৫ বছর আগে একটি পরিবার ক্ষমতার লোভে দেশে এমার্জেন্সি ঘোষণা করেছিল। রাতারাতি গোটা দেশকে জেলে পরিণত করেছিল। প্রেস, আন্দোলন, ভাষণ … সব বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। গরীব আর দলিতদের উপর অত্যাচার করা হয়েছিল, লক্ষ লক্ষ ভারতীয়রা এক হওয়ার পর সরকার এমার্জেন্সি তুলে নিতে বাধ্য হয়। এরপর ভারতে গণতন্ত্র বহাল হয় ঠিকই, কিন্তু কংগ্রেসে সেই গণতন্ত্রের নাম-গন্ধ থাকেনা। একটি পরিবারের স্বার্থ দল এবং দেশের স্বার্থের উপর প্রভাব ফেলে। আর সেই পরিস্থিতি আজও বজায় আছে কংগ্রেসে।”

বিজেপির তরফ থেকে বৃহস্পতিবার একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়। ওই ভিডিওতে লেখা হয়, ২৫ জুন ১৯৭৫, এমার্জেন্সি গণতন্ত্রের একটি কালো অধ্যায়। এছাড়াও বিজেপি আরও একটি ট্যুইট করে লেখেন, ‘কংগ্রেসের কুকীর্তি আর ভারতীয় গণতন্ত্রের সবথেকে দুঃখের অধ্যায় ২৫ জুন ১৯৭৫ এর এমার্জেন্সির বিরোধিতায় ওঠা প্রতিটি আওয়াজকে হৃদয় থেকে প্রণাম।”

আরেকদিকে, বিজেপির সভাপতি জেপি নাড্ডা বলেন, ‘আমরা সেই মহান মানুষদের প্রণাম জানাই, যারা নানান অত্যাচার সহ্য করেও এমার্জেন্সির বিরোধিতা করেছিলেন। এটি ছিল আমাদের সত্যাগ্রহীদের দৃঢ়তা যা ভারতের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকে সর্বগ্রাসী মানসিকতার বিরুদ্ধে সফলভাবে জয় হাসিল করেছিল।”