নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

বিজেপির ১৩০ কর্মীর হত্যার ব্যথা কোনদিনও হয়েছে? মমতাকে প্রশ্ন শাহের

বাঁকুড়াঃ হেলিকপ্টারে প্রযুক্তিগত ত্রুটির কারণে ঝাড়গ্রামে যেতে পারেন নি অমিত শাহ (Amit Shah)। তবে তিনি ভার্চুয়াল ভাবে ঝাড়গ্রামের সভায় ভাষণ দিয়েছেন। তিনি ঝাড়গ্রামের মানুষকে আশ্বস্ত করেছেন যে, এবার যেতে পারেন নি, কিন্তু পরের বার যাবেন। ঝাড়গ্রামে ভার্চুয়ালি সভা করার পর বাঁকুড়ার রানিবাঁধে পৌঁছান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমি শাহ। সেখান থেকে তিনি তৃণমূল সরকার এবং তৃণমূলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একের পর এক আক্রমণ করেন।

বাঁকুড়ার সভা থেকে অমিত শাহ বলেন, ‘মমতা দিদির পায়ে আঘাত লেগেছে। জানিনা কি করে লেগেছে, কিন্তু তৃণমূল এই ঘটনাকে ষড়যন্ত্র বলে আখ্যা দিচ্ছে। আরেকদিকে, নির্বাচন কমিশন বলছে এটা কোনও ষড়যন্ত্র না, এটা দুর্ঘটনা।” অমিত শাহ বলেন, ‘দিদি আপনি হুইল চেয়ারে করে এদিক-ওদিক ঘুরছেন। আপনার পায়ের ব্যথা নিয়ে আমি চিন্তিত। কিন্তু আপনার কি বিজেপির ১৩০ জনের উপরে কর্মীর হত্যা নিয়ে কোনও ব্যথা আছে?”

অমিত শাহ বলেন, বিজেপির ওই ১৩০ জন কর্মী কারোর ভাই ছিল, বাবা ছিল, স্বামী ছিল, ছেলে ছিল। কিন্তু আপনাদের গুণ্ডারা ওদের নির্মম ভাবে হত্যা করেছে। বিজেপির এই কর্মীদের হত্যাতে একটুও ব্যথা হয়নি আপনার? অমিত শাহ বলেন, বিজেপির কর্মীদের হত্যার বদলা একুশের নির্বাচনে EVM এ ভোট দিয়ে নেবে জনতা।

বাঁকুড়ার সভা থেকে অমিত শাহ বলেন, কেন্দ্রীয় জল শক্তি মন্ত্রালয় রাজ্যের আদিবাসী এলাকায় বাড়ি বাড়ি জল পৌঁছে দেওয়া জন ৯৩৩ কোটি টাকা দিয়েছিল। কিন্তু এই সরকার টেন্ডারই বের করে নি। টাকা নিয়ে আগেই কোথায় কাটমানি দেওয়া হবে সেটার চিন্তা করছিল। এখনও পর্যন্ত মাত্র ১২২ কোটি টাকাই খরচ করেছে মমতার সরকার। তিনি বলেন, আমরা বাংলায় ক্ষমতায় এলে বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, জঙ্গল মহলের আদিবাসী এলাকায় প্রকৃত উন্নয়ন পৌঁছে দেব। নলের মাধ্যমে সবার বাড়ি বাড়ি বিশুদ্ধ পানীয় জল পৌঁছে দেব।

Related Articles

Back to top button