Press "Enter" to skip to content

আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের টাকা নিজের পরিবারের সদস্যকে দিয়েছিলেন তৃণমূল নেতা! বাড়ি ঘেরাও করল আসল প্রাপকেরা

শেয়ার করুন -

পূর্ব মেদিনীপুরঃ আমফান (Amphan) ক্ষতিপূরণে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে মেদিনীপুরের কাঁথিতে তৃণমূল (All India Trinamool Congress) নেতার বাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখালেন স্থানীয় বাসিন্দারা। প্রায় দুই ঘণ্টা রাস্তা অবরোধ করে জানানো হল প্রতিবাদ। ঘটনার খবর পেয়েই ছুটে যায় পুলিশ। পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পরিষদের সদস্য উত্তম বারিকও যান সেখানে। ঘটনার তদন্ত করার প্রতিশ্রুতি দিলে অবরোধ তোলে স্থানীয়রা।

আমফানে ঝড়ে বিধ্বস্ত প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তরা পাননি ক্ষতিপূরণ। কাঁথি শহরের তৃণমূলের যুব নেতা ইমরান আলী খান নিজের লোকদের আমফানের টাকা দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন গ্রামবাসীরা। এরপর কাঁথি শহরের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দারা তৃণমূল নেতা ইমরান আলী খানের বাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান। পরে কাঁথি শহর থেকে মেচেদা বাইপাস যাওয়ার রাস্তায় গাছের ডাল ফেলে প্রায় দুই ঘণ্টা পর্যন্ত রাস্তা আটকে রাখেন বিক্ষুব্ধরা।

এক বিক্ষোভকারী বলেন, আমফান ঘূর্ণিঝড়ে এলাকার অনেকের ঘরবাড়ি ভেঙেছে। প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কিন্তু তৃণমূলের যুব নেতা প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ না দিয়ে, নিজের পরিবারের সদস্য আর তৃণমূল ঘনিষ্ঠ মানুষদের হাতে ক্ষতিপূরণের টাকা তুলে দিয়েছেন। উনি জানান, এই বিষয়ে অভিযোগ জানানো হলে আমাদের তাড়িয়ে দেওয়া হয়। আর এই কারণেই তৃণমূল নেতার বাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখানো হয়।

জেলা পরিষদের সদস্য উত্তম বারিক বলেন, আমফানের যত ক্ষতিপূরণ এসেছিল তাঁর থেকে ক্ষতিপূরণ প্রাপ্তদের সংখ্যা অনেক বেশি ছিল। এই কারণে সবাইকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে যারা ক্ষতিপূরণ পাননি তাদের আশ্বাস দিয়েছি। তাদের আবার ক্ষতিপূরণের জন্য আবেদন করতে বলেছি। আবারও আবেদন করলে ক্ষতিপূরণ পাবে তাঁরা। যদিও তৃণমূলের যুব নেতা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, আমি কিছুই করিনি। ক্ষতিপূরণ যা দেওয়ার দিয়েছে প্রশাসন। এখানে আমার কোন হাত নেই।