Press "Enter" to skip to content

জামিন দিলেই ও পালিয়ে গিয়ে অশান্তি ছড়াবে! অমূল্য লিওনির আবেদন খারিজ করে বলল আদালত

শেয়ার করুন -

স্টাফ রিপোর্টঃ ব্যাঙ্গালুরুর আদালত বুধবার দেশদ্রোহ এর মামলায় অভিযুক্ত কলেজ ছাত্রী অমূল্য লিওন (amulya leon) এর জামিনের আবেদন খারিজ করে দিয়েছে। আদালত জানিয়েছে যে, জামিন পেলেই ও পালিয়ে যাবে। কলেজ ছাত্রী অমূল্য লিওন ২০ ফেব্রুয়ারি ব্যাঙ্গালুরুতে নাগরিকরা সংশোধন আইনের বিরুদ্ধে AIMIM এর প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসির (Asaduddin Owaisi) মঞ্চে উঠে পাকিস্তানের (Pakistan) সমর্থনে স্লোগান দিয়েছিল।

আদালত জানিয়েছে যে, যদি ১৯ বছরের অমূল্য লিওনিকে জামিন দিয়ে দেওয়া হয়, তাহলে সে এমন অপরাধে যুক্ত হয়ে যাবে যেটার ফলে চারিদিকে শান্তি ভঙ্গ হবে। অমূল্য ব্যাঙ্গালুরুর কলেজে জারনালিসম নিয়ে পড়ছিল। পুলিশ অমূল্যর বিরুদ্ধে দেশদ্রোহ, সম্প্রদায়ের মধ্যে শত্রুতা বাড়ানোর মামলা দায়ের করেছে।

যদিও লিওনির বন্ধুরা দাবি করেছে যে, সে পাকিস্তান আর ভারত সমেত সমস্ত দেশের স্লোগান দিয়ে মানবতার বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করছিল। অমূল্যর জামিনের আবেদন খারিজ করে ব্যাঙ্গালুরুর ৬০ তম অ্যাডিশনাল সেশন বিচারন বিদ্যাধর শিরপট্টি নিজের আদেশে বলেন, ‘যদি আবেদনকারীকে জামিন দিয়ে দেওয়া হয়, তাহলে সে পালিয়ে যেতে পারে।”

অমূল্য সিএএস আর এনআরসির বিরুদ্ধে প্রতিবাদের মুখ হয়ে উঠেছিল। আর তাঁকে ২০ ফেব্রুয়ারি বিকেলে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার করার প্রধান কারণ হল, AIMIM এর একটি জনসভায় মঞ্চে উঠে সরাসরি পাকিস্তানের সমর্থন করে লিওনি ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ” স্লোগান দিয়েছিল।

লকডাউনের কারণে অমূল্যর জামিনের শুনানিতে দেরি হয়। ২৫ মার্চ জামিনের জন্য আদালতে আবেদন দাখিল হয়েছিল। ব্যাঙ্গালুরু পুলিশ লকডাউনের সময় ছাত্রীর বিরুদ্ধে কোন চার্জশিট দাখিল করেনি। লকডাউনের নিয়ম শিথিল হওয়ার পর অমূল্যর মামলা নিয়ে আবারও শুনানি শুরু হয়।