নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

জন কি বাত-এর সমীক্ষা পাল্টে দিয়ে তৃণমূলকে জয়ী দেখাল আনন্দবাজার! আদালতে যাওয়ার হুঁশিয়ারি মিডিয়ার CEO-র

কলকাতাঃ ২৭ মার্চ ২০২১ থেকে শুরু করে ২৯ এপ্রিল ২০২১ পর্যন্ত বিভিন্ন সংস্থা এবং মিডিয়া রাজ্যের প্রতিটি জেলা, প্রতিটি কেন্দ্র, প্রায় প্রতিটি বুথ ঘুরে ঘুরে বুথ ফেরত সমীক্ষা করেছে। গতকাল বাংলার শেষ দফার ভোটের দিন প্রতিটি সংস্থার তরফ থেকে তাঁদের বুথ ফেরত সমীক্ষা প্রকাশ করা হয়েছে। এক একটি সমীক্ষার মত এক এক রকম। কয়েকটি সমীক্ষায় তৃণমূল ফের ক্ষমতায় আসছে দেখাচ্ছে। আবার কয়েকটি সমীক্ষায় বিজেপি এগিয়ে বলছে। তবে এবারের বুথ ফেরত সমীক্ষায় এটুকু স্পষ্ট যে, বাংলায় এবার তৃণমূল-বিজেপির হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে চলেছে।

প্রতিটি সংস্থা আর মিডিয়ায়র মতো জন কি বাত (JAN KI BAAT) নামের একটি মিডিয়া সংস্থান বাংলার প্রতিটি কেন্দ্র ঘুরে ঘুরে ৩৩ দিন ধরে বুথ ফেরত সমীক্ষা করেছে। আর সবার মতো তাঁরাও গতকাল নিজেদের এক্সিট পোল পেশ করেছে। জন কি বাতের এক্সিট পোলে দেখানো হয়ছে যে, এবার বঙ্গে ২৯২টি আসনের মধ্যে শাসক দল তৃণমূল ১০৪ থেকে ১২১টি আসন পাচ্ছে।

ওই সমীক্ষায় দেখানো হয়েছে যে, বাংলায় ২০০ আসন নিয়ে সরকার গড়ার দাবি করা বিজেপি ১৬২ থেকে ১৮৫টি আসন পেতে পারে। আর সংযুক্ত মোর্চা ৩ থেকে ৯টি আসন পেতে পারে। বলে রাখি, জন কি বাতের এক্সিট পোল তাঁদের নিজেদের সমীক্ষার উপর ভিত্তি করে করা হয়েছে। কিন্তু গতকালের ওই সমীক্ষা পেশের পর আজ শুক্রবার সকালের একটি দৈনিক পত্রিকায় কাকতলীয় ভাবে উল্টে দেওয়া হয়েছে।

বাংলার প্রথম সারির দৈনিক পত্রিকা আনন্দবাজার (Anandabazar Patrika) জন কি বাতের বুথ ফেরত সমীক্ষা পাল্টে দিয়ে দেখিয়েছে যে, তৃণমূল ১৬২ থেকে ১৮৫টি আসন পেতে পারে। আর বিজেপি ১০৪ থেকে ১২১ আসন পেতে পারে বলে দেখানো হয়েছে। শুক্রবারের সকালের আনন্দবাজার পেপারের একটি ছবি পোস্ট করে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন জন কি বাত-র ফাউন্ডার এবং CEO প্রদীপ ভাণ্ডারী। তিনি টুইটারে একটি পোস্ট করে আনন্দবাজারকে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

প্রদীপ ভাণ্ডারী টুইটে লিখেছেন, ‘প্রিয় আনন্দবাজার, জন কি বাত এক্সিট পোল নিয়ে করা আপনাদের ইনফোগ্র্যাফিক  সম্পূর্ণ বিভ্রান্তকর। আমি আপনাদের আইনি নোটিশ পাঠাব। আমাদের এক্সিট পোল আমাদের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলে দেওয়া আছে।” এরপর প্রদীপবাবু জন কি বাতের এক্সিট পোল নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেন।

Related Articles

Back to top button