নতুন খবর

অমিত শাহ ভীতু, ইতিহাসও থুতু দেবে জানোয়ারটার উপর: অনুরাগ কাশ্যপ, সিনেমা পরিচালক

চলচ্চিত্র নির্মাতাকারী অনুরাগ কাশ্যপ (Anurag Kashyap) চরম অবমাননাকর ভাষা ব্যবহার করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে আক্রমণ করেছেন। মাত্র কিছুদিন আগেই দাবি উঠছিল অনুরাগ কাশ্যপকে কেন্দ্র সরকার ফান্ডিং না করাই উনি মোদী সরকারের উপর আক্রোশিত হয়ে রয়েছে। আর এখন সম্ভবত তত প্রভাব দেখা যাচ্ছে। সোমবার তার টুইটে কাশ্যপ লিখেছেন, ‘আমাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কতটা ভীতু। নিজস্ব পুলিশ, নিজস্ব গুন্ডা, নিজস্ব সেনাবাহিনী এবং নিজের সুরক্ষা বাড়িয়ে আর নিরস্ত্র আন্দোলনকারীদের উপর আক্রমণ করায়। সস্তাতা ও হীনমন্যতার পরিধি যদি থাকে তবে তা হলো অমিত শাহ। ইতিহাস এই জানোয়ার উপরে থুথু ফেলবে।” কশ্যপ এই টুইটটি শাহ এর দিল্লীতে হওয়া নির্বাচনী রেলির সময় CAA ও NRC এর বিরোধ করায় একটি যুবককে মারধোর করার কারণে করেছিলেন।

বিতর্কিত টুইট পোস্ট করার পর কাশ্যপ, এরকম অনেক লোকের টুইটকে রিটুইট করে, যারা শাহ এর রেলিতে হওয়া ঘটনটির ভিডিও শেয়ার করেছিল।এরপর যখন একজন বিখ্যাত সাংবাদিক কশ্যপকে ভাষাগত সীমানায় থেকে বিক্ষোভ করার পরামর্শ দিয়েছিলেন। তৎপর কাশ্যপ নিজেকে বাঁচিয়ে বলেন, “আমাদের নিরাপত্তা কি এই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে? তিনি যে ভাষায় কথা বলেন তার সাথে আমি তার ভাষাতেই কথা বলেছি। আর আমি যা শব্দ ব্যবহার করেছি তার মধ্যে কোনটি ভুল আপনি বলুন।”

একটি টুইটের জবাবে তিনি বলেছিলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর জনসভায় বিজেপি সমর্থকরা তার সামনে একজন প্রতিপক্ষকে মারধর করছে এবং এই সেই সময়, এটি দেখে কোন ধরণের মানুষ এরকম বলেন যেটি অমিত শাহ বলেছেন। আমাদের নিরাপত্তা কি এই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে আছে? তিনি যে ভাষায় কথা বলেন তাকে সেই ভাষায় জবাব দেওয়া হয়েছে। এটিতে কোনটি আপত্তিজনক ভাষা বা শব্দ বলুন।

শাহের নির্বাচনী জনসভায় যে তোলপাড়ের ভিডিও আজকাল ভাইরাল হচ্ছে, তা ৮ই ফেব্রুয়ারিতে হওয়া দিল্লির রেলির ভিডিও বলা হচ্ছে। এতে শাহকে একটি বক্তব্য দিতে দেখা গেছে। এদিকে, ভিড়ের মধ্যে থাকা এক যুবক হঠাৎই NRC এবং CAA-র বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে শুরু করেন, এর পরে বিজেপি সমর্থকরা তাকে মারধর শুরু করে। এরপরে শাহ মঞ্চ থেকে লোকদের তাকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানায় এবং সিকিউরিটির লোকদের তাড়াতাড়ি এসে সেই ব্যক্তিকে নিরাপদে সেখান থেকে নিয়ে যাওয়ার আদেশ দেয়।

এর পরে শাহ লোকদের আরও বলেছিলেন যে পিছন ফিরে তাকাবেন না, কিছুই হয়নি এবং তারপরে তারা জনগণকে ‘ভারত মাতা কি জয়’ বলে চিৎকার করায়। এই সমাবেশে, CAA এর বিরোধিতা করার জন্য একজন যুবককে লোহার চেয়ার দিয়ে মারে। অমিত শাহ যুবকটিকে নিরাপদে বাইরে নিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন, কিন্তু লোকজনকে আর পেছন ফিরে তাকাতে বারণ করে,এবং বলেন যে কিছুই হয়নি, আর তারপর ভারত মাতাকি জয়’ স্লোগানও দিয়েছিলেন। যাতে পরিস্থিতি বিগড়ে না যায় তাই অমিত শাহ সেই পদক্ষেপ নিয়েছিলেন বলে জানা গেছে।

Back to top button
Close