Press "Enter" to skip to content

দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে বড়ো পদক্ষেপ নিতে হবে, যা মোদী ও অমিত শাহ নিতে পারেন:আরিফ আজাকিয়া, পাকিস্তানি বুদ্ধিজীবী।

শেয়ার করুন -

CAB বিল পাশ হয়ে তা আইনে পরিণত হওয়ার পর এখন দেশজুড়ে বিতর্কের শেষ হচ্ছে না। CAA তে ধর্মের ভিত্তিতে ভেদাভেদ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। দাবি করা হয়েছে পাকিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আগত মুসলিমদেরও ভারতে নাগরিকত্ব দেওয়ার হোক। CAB তে পাকিস্তান , বাংলাদেশ থেকে আগত হিন্দু, শিখ, জৈন, খ্রিষ্টানদের ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। অর্থাৎ যারা ধার্মিক কারণে এই ইসলামিক দেশগুলিতে নিপীড়িত শোষিত তথা অত্যাচারিত তারা ভারতে নাগরিকত্ব পাবেন। দেশে CAA নামে যে বিরোধ হচ্ছে তা মূলত NRC এর জন্য। আসলে একটা ভ্রান্তি মানুষের মধ্যে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে যে NRC এর জন্য মুসলিমদের কাছে ১৯৭১ সালের ডকুমেন্ট চাওয়া হবে।

কিন্তু আসলে এই নিয়মটি শুধুমাত্র আসামের জন্য, পুরো ভারতে NRC হলে তার জন্য ১৯৭১ সালের কোনো ডকুমেন্ট লাগবে না। এমকি সাক্ষী দিয়েও নিজেকে এদেশের প্রমান করার সুযোগ থাকবে। তবে একটা গুজব মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে যাওয়ায় দেশজুড়ে মুসলিম সমাজের মধ্যে ক্ষোভ দেখা যাচ্ছে। এ সবের মধ্যে পাকিস্তানের বুদ্ধিজীবী আরিফ আজাকিয়া বলেছেন মোদী, অমিত শাহ ও অজিত দোভালের ভিশন খুবই পরিষ্কার।

আরিফ আজাকিয়া বলেছেন, মোদী ও অমিত শাহ যা বলেন সেটাই করে দেখান। সেটা ধারা ৩৭০ হোক, রাম মন্দির হোক, তিন তালাক হোক, CAA হোক। আরিফ বলেন দেশের উন্নয়ণ করতে হলে কড়া পদক্ষেপ নিতে হবে যা মোদী ও অমিত শাহ করতে পারেন। আরিফ বলেন আমাদের এটা মনে রাখা উচিত যে মোদী সরকার এ বছরে POK এর কথাও বলেছেন। সেক্ষেত্রে ভারত সরকার এখন POK দখল করতে পারে তা নিয়ে একটা শঙ্কা রয়েছে।

উনি বলেন, আমার মনে হয় ভারত POK নিয়ে খুবই সিরিয়াস আর পাকিস্তানের যা অবস্থা তাতে ভারত বড়ো পদক্ষেপ নিতে পারে। মোদী সড়কে যেটা এই কয়েক বছরে করে দিয়েছে সেটা কংগ্রেস ৬৫ বছরেও করতে পারেনি। এখন CAB নিয়ে যে বির্তক চলছে সেটা বিরোধীদের ষড়যন্ত্র। আর আমি নিশ্চত যে NRC এর ক্ষেত্রে সরকার এমন নিয়ম করবে যাতে কোনো গরিব মানুষ সমস্যায় না পড়ে, সেটা হিন্দু হোক বা মুসলিম।