নতুন খবররাজনীতি

সরকার গড়ার এক সপ্তাহের মধ্যেই ব্যাকফুটে শিবসেনা, দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন শয়ে শয়ে শিবসৈনিক

মহারাষ্ট্রে (Maharashtra) এক মাস ধরে চলা রাজনৈতিক অস্থিরতার পর রাষ্ট্রবাদী কংগ্রেস পার্টি (NCP) আর কংগ্রেসের (Congress) সাথে মিলে স্থায়ী সরকার গরেছে শিবসেনা (Shiv Sena)। কিন্তু এক সপ্তাহ যেতে না যেতেই বড়সড় ঝটকা খেলেন শিবসেনা প্রধান উদ্ভব ঠাকরে (Uddhav Thackeray)। শিবসেনা থেকে প্রায় ৪০০ শিব সৈনিক বিজেপির (BJP) ঝাণ্ডা তুলে নিলো। সংবাদ সংস্থা এএনআই অনুযায়ী, বুধবার মুম্বাইয়ের ধারাবিতে প্রায় ৪০০ শিব সৈনিক ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দেন।

শোনা যাচ্ছে যে, দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া শিবসেনার সমস্ত কার্যকর্তা নিজেদের ঘোর বিরোধী এনসিপি আর কংগ্রেসের সাথে জোট নিয়ে চরম ক্ষুব্ধ। আর এই কারণে তাঁরা বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, ২৪ অক্টোবর মহারাষ্ট্রের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হয়েছিল। বিজেপি ১০৫ টি আসন জিতে মহারাষ্ট্রে সবথেকে বড় দল হয়ে উঠে এসেছিল। আর বিজেপির জোট সঙ্গী শিবসেবা ৫৬ টি আসনে জয়লাভ করেছিল। আরেকদিকে এনসিপি ৫৪ আর কংগ্রেস ৪৪ টি আসন দখল করেছিল। কিন্তু বিজেপির সাথে জোট থাকার পরেও শিবসেনা বিজেপির সাথে মুখ্যমন্ত্রী পদ নিয়ে দর কষাকষি করে বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করে।

শিবসেনা মুখ্যমন্ত্রী পদের জন্য ৫০-৫০ ফর্মুলার দাবি করেছিল। এই ফর্মুলা অনুযায়ী, শিবসেনা আড়াই বছর আর বিজেপি আড়াই বছর রাজ্য চালাবে। কিন্তু বিজেপি এই দাবি সরাসরি নস্যাৎ করে দেয়। আর এরপরই শিবসেনা বিজেপির সাথে কয়েক দশক পুরনো বন্ধুত্ব ভেঙে কংগ্রেস আর এনসিপির হাত ধরে। এরপর এনসিপি, কংগ্রেস আর শিবসেনা মিলে মহা বিকাশ অঘাড়ি জোট করে রাজ্যকে নতুন সরকার দেয়। গত সপ্তাহে বিধানসভায় উদ্ভব ঠাকরের সরকার সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করেছে। মোট ১৬৯ জন বিধায়কের সমর্থন নিয়ে রাজ্যে সরকার চালাচ্ছে শিবসেনা।

Back to top button
Close