নতুন খবরভারতবর্ষ

৩৭০ ধারা এখন অতীত, এবার কাশ্মীরে নতুন অ্যাকশন নিতে চলেছে কেন্দ্র

নয়া দিল্লিঃ সম্প্রতি জম্মু ও কাশ্মীরের (Jammu & Kashmir) অবস্থার উন্নতি হয়েছে এবং পরিস্থিতি কোথাও কোথাও স্বাভাবিকতার দিকে চলে গিয়েছে। সরকার যে নীতি ও আইনগত পরিবর্তন করেছে তা স্পষ্টতই এর পিছনে বড় হাত বলে মনে করা হচ্ছে এবং এই অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য এটি হওয়া দরকার ছিল, তাই হচ্ছেও। কিন্তু এখনও এমন কিছু সংগঠন রয়েছে যারা নিরন্তর ভারতের বিরুদ্ধে কাজ করে চলেছে এবং তাদের বিরুদ্ধে একটি বড়সড় পদক্ষেপও নেওয়া হচ্ছে।

অতি সম্প্রতি অনেক রিপোর্টে জানা গিয়েছে যে সরকার জম্মু ও কাশ্মীরে ভারত বিরোধী গতিবিধি চালানো হুরিয়াতকে পাশের চেয়ারে বসানোর পরিবর্তে তাঁদের নজরদারিতে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। খবর অনুসারে, তদন্তকারী সংস্থাগুলির হাতে এমন অনেক প্রমাণ উঠে এসেছে, যা এই বিচ্ছিন্নতাবাদীদের চেপে ধরার জন্য যথেষ্ট।

সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, ভারত (India) সরকার এই সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে একটি ক্র্যাকডাউনের প্রস্তুতি নিচ্ছে, যার অধীনে তাঁদের নিষিদ্ধ করা যেতে পারে এবং তাঁদের সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে UAPA আইনের অধীনে ব্যবস্থা নিয়ে তাদের সম্পত্তিও বাজেয়াপ্ত করা যেতে পারে। যাতে এরা সেই সম্পত্তির অপব্যবহার কোন ভুল কার্যকলাপের জন্য ব্যবহার না করতে পারে।

বিগত কিছু সময়ে হুররিয়াত জম্মু ও কাশ্মীরে এমন অনেক ক্ষেত্রে বনধ ডেকেছে যা সাধারণ জনগণ বা সরকারের স্বার্থের বিরুদ্ধে যাচ্ছে এবং অনেক সময়ে প্রশাসনকে স্থিতিশীল থাকতে বাধা দেওয়ার ব্যর্থ প্রচেষ্টা করেছে। এখন এই ক্র্যাক ডাউন কবে শুরু হবে এবং কখন সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে তা কেবল সময়ই বলে দেবে, তবে আপাতত হুররিয়াত জনগণের জন্য উদ্বেগের পরিবেশ তৈরি করেছে।

Related Articles

Back to top button