Press "Enter" to skip to content

ইয়াকুব মেমনের ফাঁসির বিরোধিতা করা কংগ্রেস বিধায়ককে মন্ত্রী বানালো উদ্ভব ঠাকরে!

শেয়ার করুন -

সোমবার মহারাষ্ট্রে (Maharashtra) প্রথম মন্ত্রী মণ্ডলের বিস্তার হয়। মন্ত্রী মণ্ডলে জায়গা করে নেন এনসিপির প্রবীণ নেতা অজিত পাওয়ার। ওনাকে মহারাষ্ট্রের উপ মুখ্যমন্ত্রী পদ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও মন্ত্রীমণ্ডলে মুখ্যমন্ত্রী উদ্ভব ঠাকরের (uddhav thackeray) ছেলে আদিত্য ঠাকরে সমেত শিবসেনা (Shiv Sena), এনসিপি আর কংগ্রেসের ৩৬ নতুন বিধায়ক মন্ত্রী পদে শপথ নেন। ঠাকরে সরকারের মন্ত্রী মণ্ডলের বিস্তারের পর মন্ত্রী পদে শপথ নেওয়া কংগ্রেসের (Congress) মুসলিম বিধায়ক আসলাম শেখ (Aslam Shaikh) চর্চার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে ওঠেন। উদ্ভব ঠাকরের ক্যাবিনেটে আসলাম শেখকে মন্ত্রী বানানোর পর রাজ্য জুড়ে শিবসেনা আর জোট সরকারের সমালোচনা শুরু হয়ে গেছে।

কংগ্রেস বিধায়ক আসলাম শেখ ভারতের তৎকালীন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জীকে একটি চিঠি লিখেছিলেন, ওই চিঠিতে উনি ১৯৯৩ সালে মুম্বাই হামলায় দোষী ইয়াকুব মেমনের প্রাণ ভিক্ষার আবেদন করেছিলেন। ইয়াকুব মেমন ১৯৯৩ সালে মুম্বাই বোমা হামলায় দোষী ছিল, আর তাঁকে ফাঁসির সাজা শোনানো হয়েছিল।

আসলাম শেখ মহারাষ্ট্রের রাজনীতিতে খ্যাতনামা মুসলিম চেহারাদের মধ্যে একটি। ঠাকরে সরকারে কংগ্রেসের কোটা থেকে আসলাম শেখকে মন্ত্রী পদ দেওয়া হয়েছে। মুম্বাইয়ের মালাড এলাকা থেকে আসলাম শেখ এবার বিধায়ক হয়েছেন। কংগ্রেসের টিকিটে লাগাতার তিনবার বিধায়ক হয়েছেন তিনি। মহারাষ্ট্রে কংগ্রেসের মোট ৪৪ জন বিধায়ক আছে, যার মধ্যে তিনজন মুসলিম।

প্রসঙ্গত, ২৮ জুলাই ২০১৫ সালে আসলাম শেখ নিজের অন্য সহযোগীদের সাথে নিয়ে ১৯৯৩ সালে মুম্বাই হামলার দোষী ইয়াকুব মেমনের প্রাণ ভিক্ষার আবেদন করেছিলেন রাষ্ট্রপতির কাছে। সেই সময় গোটা কংগ্রেস দল আসলাম শেখের এই কাণ্ডের জন্য চাপগ্রস্ত হয়ে পড়েছিল।