Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানে ১০০ বছর পুরানো মন্দিরে হামলা! ৭৪ বছর পর মন্দিরে শুরু হয়েছিল পূজোপাঠ

শেয়ার করুন -

দোল পূর্ণিমার উৎসবে একদিকে যখন পুরো বিশ্বজুড়ে হিন্দুরা হলি খেলতে মেতেছে, তখন ইসলামিক দেশগুলি থেকে হিন্দুদের যে ছবি সামনে এসেছে তা খুবই মর্মান্তিক। বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মতো দেশে দোল পূর্ণিমার দিনগুলিতে একের পর এক মন্দিরে হামলার খবর সামনে এসেছে। বাংলাদেশের আনন্দময়ী কালী মন্দিরে কট্টরপন্থীদের হামলার খবর আগেই সামনে এসেছে। আর এখন পাকিস্তানের এক প্রাচীন এক মন্দিরে হামলার খবর সামনে এসেছে।

পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডি শহরে জেহাদিরা ১০০ বছরের পুরানো এক মন্দিরে আক্রমন করেছে। শনিবার দিন সন্ধ্যেবেলা ১০ থেকে ১৫ জন উন্মাদী ‘পুরানা কিলা মাতা’ মন্দিরে হামলা চালায় এবং মূল দরজা ভেঙে দেয়। একই সাথে মন্দিরের সিঁড়িও ভাঙচুর করে নষ্ট করে। হামলাকারীদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে। যদিও স্থানীয় প্রশাসন দোষীদের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নেবে বলে আশাবাদী নয় সনাতনীরা।

সম্প্রতি মন্দিরের মন্দিরের মেরামতের কাজ চলছিল। জানা গেছে মন্দির মেরামতের কাজ ভালো চোখে দেখেনি জেহাদিরা। রাওয়ালপিন্ডিতে হিন্দুদের জনসংখ্যা খুবই কম। প্রায় ১৮০০ সনাতনী এই শহরে বাস করেন। বহু দশক ধরে জিহাদীদের তাণ্ডবে মন্দিরে পুজো বন্ধ ছিল। ৭৪ বছর পর সম্প্রতি ‘মাতা মন্দিরে’ পুজো শুরু হয়েছিল।

টুইটারে প্রেম রাঠি নামের এক ইউজার পাকিস্তানের এই ঘটনা সম্পর্কে বিশদে জানিয়েছেন। একই সাথে উনি মন্দিরের এক ভিডিও শেয়ার করেছেন। যেখানে হামলার পর মন্দিরের পরিস্থিতি দেখা যাচ্ছে।