Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানকে দেওয়া সমস্ত ফান্ড বন্ধ করলো অস্ট্রেলিয়া! ফান্ডকে ব্যাবহার করতো আতঙ্কবাদ প্রমোটের জন্য।

শেয়ার করুন -

অস্ট্রেলিয়ার (Australia) ডানপন্থী সরকার পাকিস্তান সরকারকে আরও একটি অর্থনৈতিক ঝটকা দিয়েছে, যারা এমনিতেই অর্থনৈতিক মন্দার সাথে লড়াই করছে। আসলে, অস্ট্রেলিয়ার স্কট মরিসন (Scott Morrison) সরকার এখন সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে তারা পাকিস্তানের জন্য ফান্ডিং পুরোপুরি বন্ধ করে দেবে। এই বছর থেকে অস্ট্রেলিয়া পাকিস্তানকে দেওয়া সমস্ত হ্রাস করে ধীরে ধীরে ফান্ড বন্ধ করে দেবে। এ বছর অস্ট্রেলিয়ার সরকার পাকিস্তানকে দেওয়া সমস্ত ফান্ড হ্রাস করবে বলে জানিয়েছে। 2020-21 সালে এই আর্থিক সহায়তা পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে।

Imran khan

জানিয়ে দি, এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রশাসনও পাকিস্তানকে দেওয়া আর্থিক সহায়তা বন্ধ করে দিয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার এই সিদ্ধান্ত  আবারও পাকিস্তানকে উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। পাকিস্তান যাতে আতঙ্কবাদকে প্রমোট না করে তার জন্য বিশ্বজুড়ে ভারত সরকার একটা প্রচার চালিয়েছে। যাতে আমেরিকা সাড়া দিয়েছে, আর এখন অস্ট্রেলিয়াও সাড়া দিয়েছে। অস্ট্রেলিয়া সাড়া দেওয়ার ফলে বিশ্বের অন্যান্য দেশের উপর চাপ আরো বৃদ্ধি পাবে যারা পাকিস্তানকে ফান্ডিং করে।

অস্ট্রেলিয়ার মিডিয়া রিপোর্ট অনুসারে, পাকিস্তানকে ২০১৮-১৯ সালে অস্ট্রেলিয়া দ্বারা ৩৯.২ মিলিয়ন ডলার আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়েছিল। যা ২০১৯-২০ সালে কমে ১৯ মিলিয়ন ডলার এবং পরের আর্থিক বছরে পাকিস্তানকে দেওয়া সব ফান্ড পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়া হবে। অস্ট্রেলিয়া বর্তমানে মেয়েদের শিক্ষার প্রচারে পাকিস্তানকে এই আর্থিক সহায়তা প্রদান করতো। কিন্তু পাকিস্তান সরকার ওই ফান্ডকে অপব্যবহার করতো বলে জানা গেছে।

Scott Morrison

দুটি রিপোর্ট সামনে এসেছে, যাতে বলা হয়েছে পাকিস্তান সরকার ফান্ডকে আতঙ্কবাদ প্রোমোট করতে ব্যাবহার করে। দ্বিতীয় পাকিস্তান সরকার তাদের ছেলে মেয়েদের এমন কিছু শিক্ষা দিচ্ছে যা কোনোভাবেই সু-শিক্ষার মধ্যে পড়ে না। ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে অন্য ধর্মের প্রতি হিংসা ঢুকিয়ে দেওয়ার কাজ চলছে। সেক্ষেত্রে পাকিস্তানকে ফান্ড দেওয়ার অর্থ পুরো অর্থ নষ্ট করা। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে একটি প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয়েছিল যে পাকিস্তান ব্রিটেনের কাছ থেকে ১০৭ মিলিয়ন ইউরো আর্থিক সহায়তার অপব্যবহার করছে।