Press "Enter" to skip to content

হিন্দুরাই দাঙ্গাবাজ! অযোধ্যা মামলায় হেরে গিয়ে গোটা হিন্দু সমাজকে অপমান করলেন রাজীব ধবন

শেয়ার করুন -

অযোধ্যা মামলায় (Ayodhya Case) মুসলিম পক্ষের আইনজীবী রাজীব ধবন (Rajiv Dhawan) একটি চরম বিতর্কিত বয়ান দেন। রাজীব ধবন অযোধ্যা মামলায় সুপ্রিম সিদ্ধান্ত নিয়ে বলেন, ভারতে বসবাস করা মুসলিমদের সাথে অন্যায় হয়েছে। এর সাথে সাথে উনি বলেন, দেশে শান্তি আর সম্প্রীতি সবসময় হিন্দুরাই নষ্ট করে। মুসলিমরা এইরকম কাজ কখনো করেনি। এর সাথে সাথে উনি রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সঙ্ঘের উপর আক্রমণ করেন।

সংবাদ মাধ্যম ANI অনুযায়ী, রাজীব ধবন বলেন, সঙ্ঘ পরিবার তালিবানের মতো কথা বলে। উনি প্রশ্ন তুলে বলেন, আখলাখকে কে মেরেছে? ওর মৃত্যুর জন্য দায়ি কে? গৌরি লঙ্কেশের মৃত্যুর জন্য কে দায়ি? গোয়ায় ক্রাইমের জন্য আর ডাভোলকারের জন্য কে দায়ি? এর সাথে সাথে রাজীব ধবন বলেন, ১৯৩৪ সালে মসজিদ কে ভেঙেছিল, কারা মব লিঞ্চিং করেছিল, কারা হত্যা করেছিল?

উল্লেখনীয়, এর আগেও সুপ্রিম কোর্টে অযোধ্যা মামলা নিয়ে শুনানি চলাকালীন সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের প্রবীণ আইনজীবী রাজীব ধবন রাম মন্দিরের ম্যাপ ছিঁড়ে ফেলেছিলেন। ওই ম্যাপে ভগবান রামের জন্মস্থলকে চিহ্নিত করা হয়েছিল। ওই ম্যাপ অখিল ভারতীয় হিন্দু মহাসভার প্রবীণ আইনজীবী বিকাস সিং আদালতের সামনে পেশ করেছিলেন। রাজীব ধবন দ্বারা রাম জন্মস্থানের ম্যাপ ছিঁড়ে দেওয়ার পর আইনজীবীরা নিন্দা করেন, আইনজীবীরা বলেন, আদালতে কাজ চলার সময় আদালতের মর্যাদা বজায় রকাহা উচিত।

গত ১৬ই অক্টোবর সুপ্রিম কোর্টে রাম মন্দির নিয়ে শুনানি চলাকালীন মুসলিম পক্ষের আইনজীবী রাজীব ধবন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এর সামনে রাম জন্মভুমির ম্যাপ ছিঁড়ে দেন। এরপর প্রধান বিচারপতি এবং অন্যান্য বিচারপতিরা এই নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া দেন। নকশা ছিঁড়ে দেওয়া ঘটনার পর চারিদিকে রাজীব ধবনের চরম নিন্দা হয়, আর এরপর হিন্দুদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে আবার শিরোনামে রাজীব ধবন।