নতুন খবরভারতবর্ষ

“আমার বিবির গর্ভপাত হয়েছিল, সে ওষুধগুলো খেত”- গ্রেফতার হওয়ার পর বলল এজাজ খান

অভিনেতা এজাজ খানকে নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো মঙ্গলবার দিন মুম্বই এয়ারপোর্ট থেকে হেফাজতে নিয়েছিল। মুম্বাইয়ের দুটি ঠিকানায় অভিযান চালানোর পর NCB বড়ো সফলতা পেয়েছিল। এরপর অভিনেতাকে গ্রেফতার করে নেওয়া হয়।

কোর্টে হাজির করার আগে এজাজ খানকে মেডিক্যাল চেকআপের জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। এজাজ খান বলেন যে তার বাড়িতে ৪ টি ঘুমের ওষুধ পাওয়া গেছে যেগুলো তার বিবি খেত। এজাজ খান বলেন, তার বিবির গর্ভপাত হয়েছে। এই কারণে ডিপ্রেসসন কমাতে তিনি ওষুধ খেতেন।

জানিয়ে দি, ড্রাগস ব্যাবসায়ী শাদাব বাটাটার সাথে এজাজ খান জড়িত রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। NCB টিম এজাজ খানের অন্ধেরি ও লোখানদওয়ালার ঠিকানাস্থলে অভিযান চালিয়েছে। জানিয়ে দি, ২০১৮ সালে মুম্বাই পুলিশ এজাজ খানকে ড্রাগস মামলায় গ্রেফতার করেছিল। ওই সময় এজাজ খানের কাছে ১ লক্ষ টাকার MD ড্রাগস পাওয়া গিয়েছিল।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালে ফেসবুক লাইভে সাম্প্রদায়িক বক্তব্যের জন্য মুম্বাই পুলিশ এজাজ খানকে গ্রেফতার করেছিল। এজাজ খান তার ফেসবুক লাইভ ভিডিওতে মুসলিমদের উস্কানি দিয়ে মন্তব্য করেছিলেন।

এজাজ খান বলেছিলেন, “যদি একটা পিঁপড়ে মরে যায় তাহলে মুসলিম দায়ী, হাতি মরে গেলে মুসলিম দায়ী, দিল্লীতে ভূমিকম্প এলে মুসলিম দায়ী। অর্থাৎ কিছু হলেই মুসলিমদের দায়। আপনারা ভেবেছেন এই ষড়যন্ত্রের জন্য কে দায়ী।”

ভারতীয় সংবিধানের পরিবর্তে কোরআন পাঠ করার কথাও বলেছিলেন এজাজ খান। যা নিয়ে জোর বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। এছাড়াও মব লিংচিংকে উস্কানি দিয়ে পন্ডিতদের পিটিয়ে জেলে ঢোকানোর কথা বলেছিলেন এই কট্টরপন্থী অভিনেতা।

 

Related Articles

Back to top button