Press "Enter" to skip to content

সবাইকে তাক লাগিয়ে চীন সীমান্তের পাশে ভেঙে পড়া ১২০ ফুটের বেইলি ব্রিজ ছয় দিনেই বানিয়ে দিলো BRO, শুরু হল যান চলাচল

শেয়ার করুন -

পিথোরাগড়ঃ চীনের সাথে জারি উত্তেজনার মধ্যে দিন কয়েক আগে মিলম রুটের সেনর নালার উপরে বানানো বেইলি ব্রিজ (Bailey Bridge) ভেঙে গেছিল কিন্তু বর্ডার রোড অর্গানাইজেশন (Border Road Organization) মাত্র ছয় দিনেই সেই ভেঙে যাওয়া ব্রিজ আবারও গড়ে তোলে। রাস্তা কাটার ম্যাশিনের জন্য বড় ট্রলিতে পোকল্যান্ড ম্যাশিন নিয়ে যাওয়ার সময় চীনের সীমান্তকে যুক্ত করা বেইলি ব্রিজ ভেঙে পড়ে। এই দুর্ঘটনার ভিডিও শুধু ভারতেই না, গোটা বিশ্বে ভাইরাল হয়ে যায়। এমনকি চীনের সংবাদ মাধ্যমেও এই ঘটনাকে বড় করে দেখানো হয়।

আসলে সামরিক দিক থেকে এই ব্রিজ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর চীনের সাথে ভারতের এই উত্তেজক পরিস্থিতিতে এই ব্রিজের গুরুত্ব অনেক বেড়ে যায়। আর সেই কারণেই এই ব্রিজ ভেঙে যাওয়ার পর ইন্টারন্যাশানাল মিডিয়ায় প্রধান খবর হয়ে গেছিল। কিন্তু BRO কড়া পরিশ্রম করে রাত দিন এক করে এই ব্রিজ মাত্র ছয় দিনেই বানিয়ে ফেলে। এই ব্রিজ আবারও তৈরি হওয়ার ফলে সেনা আর ITBP জওয়ান এবং আর্মি গাড়ি গুলোকে সীমান্তে সহজেই নিয়ে যাওয়া যাবে।

BRO ১২০ ফুট দীর্ঘ এই ব্রিজ বানানোর জন্য ৭০ জন শ্রমিকের সাথে একটি পোকল্যান্ড ম্যাশিনের ব্যবহার করেছিল। এই ব্রিজ আবারও তৈরি হওয়ার ফল মিলম উপত্যকা পর্যন্ত সেনা এবং স্থানীয় মানুষদের যাতায়াতের অনেক সুবিধা হবে। ব্রিজে যানবাহন চলাচল শুরু হওয়ার পর BRO এর ওসিকে ফুল মালা দিয়ে সংবর্ধনা জানানো হয়। এই ব্রিজ তৈরি হওয়ার ফলে চীন সীমান্তকে যুক্ত করা মুনয়ারি-মিলম রোড নির্মাণে আসা বাধাও দূর হয়ে গেলো।

BRO আজকাল বড়বড় ম্যাশিনের মাধ্যমে হিমালয়ের পাহাড় কেটে রোড বানাতে ব্যস্ত। BRO-এর ওসি অইকে রায় সময়ের আগেই ব্রিজ তৈরি করার জন্য শ্রমিকদের ধন্যবাদ জানান। উনি এও বলেন যে, চীনের সাথে চলা উত্তেজনার কারণে এই ব্রিজ সামরিক দিক থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে, আর সেই কারণে BRO টিম ২৪ ঘণ্টা এই ব্রিজ বানানোর কাজে লেগে ছিল।