Press "Enter" to skip to content

একের পর এক হিন্দু এলকায় হামলা, এর মধ্যেই ঢাকা শহরের দুটি মাদ্রাসায় মিলল বিপুল অস্ত্রশস্ত্র

শেয়ার করুন -

বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী মোদীর সফরের পর থেকে হেফাজতে ইসলামের কট্টরপন্থীরা ব্যাপক উপদ্রব শুরু করেছে। হেফাজতে ইসলামের নেতৃত্বে কট্টরপন্থীরা বেশকিছু হিন্দু বাড়িঘর জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছাই করে দিয়েছে। বাংলাদেশ স্বাধীন হলেও পাকিস্তানপন্থী শক্তি এখনও সক্রিয় রয়েছে বলে মত প্রকাশ করেছেন অনেকে।

এর মধ্যে বাংলাদেশের রাজধানী শহর ঢাকা থেকে চাঞ্চল্যকর খবর সামনে এসেছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, ঢাকা শহরের দুটি মাদ্রসা থেকে বহু সংখ্যায় অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার হয়েছে। গোপন সূত্রে খবর পাওয়ার পর পুলিশ, চক বাজার ও লালবাগে অভিযান চালিয়েছিল। যেখানে তারা বহু সংখ্যায় অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করে।

দূটি মাদ্রাসা থেকে প্রায় ৫৯০ টি ধারাল অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে যে তারা এগুলো ঈদে কোরবানির জন্য ব্যাবহার করতো। যদিও কোরবানির জন্য এত সংখ্যায় অস্ত্র কিসের প্রয়োজন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। বাংলাদেশে একের পর এক হিন্দু এলাকায় হামলার ঘটনা সামনে আসছে। এর মধ্যে মাদ্রাসায় অস্ত্র পাওয়ার ঘটনা প্রশাসনকে রীতিমতো নড়েচড়ে বসতে বাধ্য করেছে।

বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নিরীহ হিন্দুদের উপর অত্যাচারের বিষয়ে আন্তর্জাতিক মহল থেকেও আওয়াজ উঠতে শুরু হয়েছে। বাংলাদেশে হিন্দুদের করুন অবস্থা নিয়ে মুখ খুলেছেন আমেরিকান রাজনীতিবিদ তুলসী গাবার্ড। ১৯৭১ থেকে শুরু করে কিভাবে বাংলাদেশকে হিন্দু শূন্য করার উপর কাজ চলছে তা বিস্তারিতভাবে বিশ্বের সামনে তুলে ধরেন তুলসী গাবার্ড। সোশ্যাল মিডিয়ায় এক ভিডিও প্রকাশ করে তিনি বাংলাদেশের হিন্দুদের উপর ইসলামিক জিহাদিদের আক্রমনের ঘটনাগুলির বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলেন।