Press "Enter" to skip to content

নিজেকে হিন্দু পরিচয় দিয়ে ভারতে বসবাস করছিল বাংলাদেশি মুসলিম মহিলা! এবার হল গ্রেফতার

শেয়ার করুন -

নাগরিকতা সংশোধন আইন আর এনআরসি নিয়ে দেশজুড়ে চলা বিতর্কের মাদঝে ছত্তিসগড়ের (Chhattisgarh) দুর্গ (Durg) জেলা থেকে একটি বড় খবর আসছে। দুর্গ জেলার ভিলাই (Bhilai) এর জামুল থানা এলাকায় এক বাংলাদেশি মুসলিম মহিলাকে পুলিশে গ্রেফতার করেছে। ওই মহিলা ভুয়ো নথির সাহায্যে ওই এলাকায় বসবাস করছিল। মুসলিম মহিলা নিজের নাম বদলে ভুয়ো ভাবে ভারতীয় পাসপোর্ট, ভোটার আই কার্ড, প্যান কার্ড সমেত অন্যান্য কাগজপত্র করে নিয়েছিল।

ভিলাইয়ের জামুল থানার পুলিশ জানায়, গোপন খবর পাওয়া গেছিল যে, হাউসিং বোর্ড ৩২ একর এলাকার একটি ঘরে বাংলাদেশি মহিলা ভুয়ো ভাবে বসবাস করছিল। মহিলা সন্দেহজনক গতিবিধিতে যুক্ত থাকার খবর পুলিশ পেয়েছিল। পুলিশ জানায় বাংলাদেশি নাগরিক আশা আখতার নিজের নাম বদলে প্রিয়া পরাড়কর রেখেছিল।

জামুল থানার ইনচার্জ লক্ষন কুমেঠি বলেন, আশা আখতার প্রায় দুই বছর ধরে বাংলাদেশ থেকে রায়পুরে এসেছিল। এরপর তাঁর পরিচয় মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা হেমন্ত পরাড়করের সাথে হয়। কিছুদিন পর ওই মহিলার ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। অভিযুক্ত জানায়, এরপর তাঁরা দুজনে বিয়ে করে হাউসিং বোর্ডে বসবাস শুরু করে।

বাংলাদেশি মুসলিম মহিলা কোন আইনি প্রক্রিয়া ছাড়াই নিজের নাম বদলে নেয় আর ভুয়ো কাগজের মাধ্যমে দুজনেই ভোটার আইডি, পাসপোর্ট, প্যান কার্ড সমেত অন্যান্য আইডি প্রুফ তৈরি করে নেয়।