টাকা পয়সানতুন খবরভারতবর্ষ

পোস্ট অফিসের এই স্কিমে মাত্র ৪১৭ টাকা বিনিয়োগ করে হয়ে যান কোটিপতি

নয়া দিল্লিঃ পোস্ট অফিসের পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড আপনাকে কোটিপতি হওয়ার সুযোগ দেয়। আপনাকে এই অ্যাকাউন্টে প্রতিদিন ৪১৭ টাকার বিনিয়োগ করতে হবে। যদিও এই অ্যাকাউন্টের মেয়াদ ১৫ বছর, কিন্তু আপনি এটি ৫-৫ বছরের জন্য এটি দুবার করে বাড়াতে পারেন। এর পাশাপাশি আপনি এই প্ল্যানে ট্যাক্সের সুবিধাও পাবেন। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল আপনি এই প্ল্যানে বার্ষিক ৭.১ শতাংশ সুদ পাবেন এবং এই প্রক্রিয়া আপনাকে প্রতি বছর চক্রবৃদ্ধি সুদের সুবিধাও দেয়। জেনে কিভাবে এই স্কিম আপনাকে কোটিপতি করে তুলতে পারে।

আপনি যদি ১৫ বছরের জন্য অর্থাত্‍ ম্যাচিউরিটি পর্যন্ত বিনিয়োগ করেন এবং বার্ষিক সর্বোচ্চ ১.৫ লক্ষ টাকা জমা করেন অর্থাৎ মাসিক ১২৫০০ টাকা বা দিনে ৪১৭ টাকা জমা করেন, তাহলে আপনার মোট বিনিয়োগ হবে ২২.৫০ লক্ষ টাকা৷ অর্থাৎ, আপনি মেয়াদপূর্তির সময়ে ৭.১ শতাংশ বার্ষিক সুদের সাথে চক্রবৃদ্ধি সুদের সুবিধা পাবেন। ম্যাচিউরিটির সময়, আপনি সুদ হিসাবে ১৮.১৮ লক্ষ টাকা পাবেন। অর্থাৎ আপনি ৪০.৬৮ লক্ষ টাকা পাবেন।

আপনি যদি এই স্কিম থেকে কোটিপতি হতে চান, তাহলে আপনাকে এই স্কিমটি ১৫ বছর পর ৫-৫ বছরের জন্য দুবার বাড়াতে হবে। বার্ষিক ১.৫ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করলে, আপনার মোট বিনিয়োগ হবে ৩৭.৫০ লক্ষ টাকা। মেয়াদপূর্তির পরে, আপনি ৭.১ শতাংশ সুদের হার সহ ৬৫.৫৮ লক্ষ টাকা পাবেন। অর্থাৎ, ২৫ বছর পর, আপনার মোট তহবিল হবে ১.০৩ কোটি টাকা।

কে খুলতে পারবে এই একাউন্ট?

  • বেতনভোগী, স্ব-নিযুক্ত, পেনশনভোগী ইত্যাদি সহ যেকোন বাসিন্দা পোস্ট অফিসের পিপিএফ-এ একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন।
  • শুধুমাত্র একজন ব্যক্তি এই অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। এতে আপনি যৌথ অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন না।
  • অপ্রাপ্তবয়স্ক PPF অ্যাকাউন্ট নাবালক সন্তানের পক্ষে পিতামাতা/অভিভাবক পোস্ট অফিসে খুলতে পারেন।
  • প্রবাসী ভারতীয়রা এতে অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন না। যদি কোনও বাসিন্দা ভারতীয় পিপিএফ অ্যাকাউন্টের মেয়াদপূর্তির আগে এনআরআই হয়ে যান, তবে তিনি মেয়াদপূর্তির আগ পর্যন্ত অ্যাকাউন্টটি পরিচালনা করতে পারব

প্রয়োজনীয় নথি
পরিচয় প্রমাণ – ভোটার আইডি, পাসপোর্ট, ড্রাইভিং লাইসেন্স, আধার কার্ড
ঠিকানার প্রমাণ- ভোটার আইডি, পাসপোর্ট, ড্রাইভিং লাইসেন্স, আধার কার্ড প্যান কার্ড পাসপোর্ট সাইজের ছবি

এই অ্যাকাউন্টের সুবিধা
১.একটি আর্থিক বছরে একটি পিপিএফ অ্যাকাউন্টে সর্বাধিক আমানত ১.৫ লক্ষ টাকা।
২. পোস্ট অফিস PPF-এ জমার সংখ্যা বার্ষিক ১২ বার-এর মধ্যে সীমাবদ্ধ।
৩. পিপিএফ-এ বিনিয়োগ করা মূল পরিমাণ, অর্জিত সুদ এবং ম্যাচিউরিটির পরিমাণ সবই করমুক্ত।
৪. অ্যাকাউন্ট সক্রিয় রাখতে ন্যূনতম বার্ষিক বিনিয়োগ প্রয়োজন ৫০০ টাকার৷
৫. ৩১ শে মার্চ পোস্ট অফিস পিপিএফ অ্যাকাউন্টে বার্ষিক চক্রবৃদ্ধি সুদ প্রদান করা হয়।

Related Articles

Back to top button