Press "Enter" to skip to content

ভিক্ষা করে জীবন-যাপন করা ভিক্ষুকরাও রাম মন্দিরের জন্য দিল বড় দান

শেয়ার করুন -

রামগড়ঃ অয্যোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের জন্য দেশের প্রতিটি প্রান্ত থেকেই সাধ্য দিচ্ছে মানুষ। ঝাড়খণ্ড থেকে এরকমই এক রাম ভক্তদের খবর সামনে আসছে, যার শ্রদ্ধা সবার মনে জায়গা করে নিয়েছে। তাঁরা কোনও সাধারণ রাম ভক্ত না। তাঁরা ভিক্ষা করে নিজেদের দিন চালান। কিন্তু এরপরেও তাঁরা রাম মন্দির বানানোর জন্য ২৪২৫ টাকা দান করেছে।

মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, রাম মন্দিরের জন্য চাঁদা দেওয়া ভিখারিরা ঝাড়খণ্ডের রামগড় জেলার লেপ্রোসি কলোনির আশেপাশের বাসিন্দা। সেখানকার এক বাসিন্দা জানান, ভিখারিরা রোজ ভিক্ষা চায় আর ডাস্টবিনের মধ্যে জীবন যাপন করে। এবার সেই ভিক্ষুককরাই রাম মন্দির তৈরি হচ্ছে শুনে নিজেদের আর আটকে রাখতে পারেন না। ওই কলোনিতে চাঁদা নিতে যাওয়া রাম মন্দির নির্মাণ সমিতির সদস্যদের হাতে ২৪২৫ টাকা তুলে দেন এই ভিখারিরা।

এর আগেও মধ্যপ্রদেশে বৈতুল জেলা থেকে এরকম খবর সামনে এসেছিল। সেখানে এক মহিলা যিনি ভিক্ষা করে জীবন যাপন করেন, তিনিও মন্দির নির্মাণের জন্য টাকা দান করেন। রাম মন্দিরের জন্য চাঁদা সংগ্রহ করতে যাওয়া সদস্যদের খুচরো পয়সা হাতে তুলে দিয়ে ওই ভিখারি বলেছিলেন, সময় যতই লাগুক না কেন ভগবানের আসা চাই।

এরকমই অয্যোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের জন্য হৃষীকেশের গুহায় থাকা ৮৩ বছর বয়সী এক সন্ন্যাসী স্বামী শঙ্কর দাস কিছুদিন আগে ১ কোটি টাকা দান করেছিলেন। স্বামী শঙ্কর দাস গুহায় ভক্তদের থেকে পাওয়া অনুদান জুটিয়ে সেই টাকা রাম মন্দিরের জন্য তুলে দেন। বিগত ৬০ বছর ধরে তিনি গুহাতেই বাস করছেন।