আন্তর্জাতিকনতুন খবর

বাংলাদেশ: হিন্দুদের উপর হামলা চালিয়ে দোকানপাঠ লুট করল কট্টরপন্থীরা, চুরমার বেশকিছু মন্দির

বাংলাদেশে হিন্দুদের উপর আক্রমনের ঘটনা লাগাতার বৃদ্ধি পাচ্ছে। ১৯৭১ সাল থেকে বাংলাদেশকে সম্পূর্ণভাবে হিন্দু শুন্য করার যে বড়ো ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে তার প্রভাব এখন তীব্র হতে দেখা যাচ্ছে। লাভ জিহাদ, ল্যান্ড জিহাদের পাশাপাশি হিন্দুদের ধার্মিকস্থলে আক্রমন করা হচ্ছে। তাজা ঘটনা শনিবার দিন ঘটেছে, ৭ আগস্ট বাংলাদেশে হিন্দুদের ৪ টি মন্দিরে আক্রমন চালানো হয়েছে।

ঘটনাটি বাংলাদেশের খুলনা জেলার রূপসা উপজেলার শিয়ালি গ্রামে ঘটেছে। বাংলাদেশ হিন্দু ইউনিটি কাউন্সিল নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকে মন্দির ভাঙচুরের ছবি পোস্ট করেছে। টুইটে লেখা হয়েছে, শত শত ইসলামিক কট্টরপন্থীরা খুলনা জেলার রূপসা উপজেলার শিয়ালি ও গোবারা গ্রামে হামলা চালায়। কট্টরপন্থীরা এলাকার সমস্ত মন্দিরে এবং ৫৮ টি হিন্দু ঘরে ভাঙচুর চালায়।”

বাংলাদেশ হিন্দু ইউনিটি কাউন্সিল আরো লিখেছে, “পুলিশের তরফ থেকে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। এমনকি বাংলাদেশের কোনো মিডিয়ায় হাউস এই প্রসঙ্গে চর্চা তোলেনি। এক রিপোর্ট অনুযায়ী, কট্টরপন্থীদের এই হামলা শনিবার সন্ধ্যেবেলা ৫.৪৫ সময়ে ঘটে। অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে কট্টরপন্থীরা গ্রামের উপর হামলা চালায়। এর ফলে হিন্দুদের ৪ টি মন্দির ভেঙে চুরমার হয়ে যায়। অনেক হিন্দুর বাড়ি ঘর ভেঙে ফেলা হয়, দোকানপাট লুট করা হয়।

এই ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর পুলিশ গ্রামে পৌঁছে এবং কিছু সংখ্যায় পুলিশ মোতায়েন করে। কট্টরপন্থীরা শিয়ালির হরি মন্দির, দূর্গা মন্দির, গোবিন্দ মন্দির সহ আরো বেশকিছু ধার্মিক স্থলে হামলা চালায়। এতে হিন্দুদের দেব দেবীর মূর্তি ভেঙে চুরমার করা হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় দেব দেবীর মূর্তি ভাঙার সেই সমস্ত ছবি ভাইরাল হয়েছে।

Related Articles

Back to top button