অপরাধনতুন খবর

জোরপূর্বক মদ খাইয়ে প্রেমিকা কাজলের গলা কেটে হত্যা করল সেলিম! দু সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ ছিল যুবতী

উত্তরপ্রদেশের বিজনোরে দু সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ যুবতীর হত্যা করে দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনায় পুলিশ সেলিম নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে। আখের খেত থেকে যুবতীর কঙ্কাল উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনাটি দুই সম্প্রদায় কেন্দ্রিক হয়ে যাওয়ায় এলাকায় পুলিশ নিযুক্ত করা হয়েছে।

কাজল নামের নিখোঁজ হওয়া যুবতীর দেহ, হাত, আলাদা আলাদা জায়গায় পাওয়া গেছে। কঙ্কালের এমন অবস্থা দেখে স্থানীয় লোকজন হতবাক হয়ে উঠেছে। কাজল ৩১ শে আগস্ট বিকেলে এক সাথীর বাড়ির অনুষ্ঠানে খাওয়া দাওয়া করতে গিয়েছিল। কিন্তু কাজল আর ফিরে আসেনি। কাজলের বাবা ১ সেপ্টেম্বর মেয়ের নিখোঁজ হওয়ার অভিযোগ পুলিশের কাছে জানান।

সেলিম নামের যুবক গলার আওয়াজ বদলে কাজলের বাড়িতে ফোন করে বলেছিল যে সে কাজলকে বিয়ে করে নিয়েছে তাই তারা কাজলকে খোঁজ বন্ধ করে দিক। গলার আওয়াজ শুনে লোকজনের সন্দেহ সেলিমের উপর হয়। পুলিশ সন্দেহের ভিত্তিতে সেলিম নামের এক যুবককে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে। বেশকিছুদিন এমন পরিস্থিতি চলার পর সেলিম এখন কাজলকে হত্যার বিষয়টি কবুল করে নিয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে সেলিম বলেছে যে তার সাথে কাজলের প্রেম ছিল। তবে কাজল অন্য কারোর সাথে প্রেম করছিল বলে সন্দেহ হওয়ায় সে হত্যার পরিকল্পনা করেছিল।

যুবতীর শবদেহ পাওয়া যাওয়ার পর পুলিশ থেকে শুরু করে স্থানীয় লোকজনের হুশ উড়ে যায়। শবদেহের গলা ও দেহ আলাদা আলাদা অবস্থায় ছিল। অনেক অংশ জংলী প্রাণীরা খেয়ে ফেলেছে। আশপাশে পড়ে থাকা জামা কাপড়ের অংশ দেখে কাজলের পরিবারের তাদের মেয়েকে চিহ্নিত করে।

Back to top button
Close