নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

মুসলিম এলাকায় প্রবেশ করতে ঘিরে ফেলা হল অগ্নিমিত্রাকে, ভিড়কে ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ বাহিনীর

বার্নপুরঃ ভোটগ্রহণ শেষ হতেই বার্নপুরের রহমতনগর এলাকায় লাঠিচার্জ করে কেন্দ্রীয় বাহিনী। জানা গিয়েছে যে, একটি সংখ্যালঘু অধ্যুষিত এলাকায় গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয় বিজেপির প্রার্থী অগ্নিমিত্রা পলকে। সেখানে স্থানীয় বাসিন্দারা বিজেপির প্রার্থীকে ঘিরে ফেলে বলে জানা যায়। এরপর বিজেপির প্রার্থীকে উদ্ধার করতে নামে কেন্দ্রীয় বাহিনী।

অগ্নিমিত্রা পল অভিযোগ করে বলেন, তাঁর গাড়িতে ইট, পাথর ছোঁড়া হয়। আরেকদিকে, স্থানীয়রা পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, কেন্দ্রীয় বাহিনী তাঁদের ভোট দিতে দেয়নি। অভিযোগ করা স্বত্বেও কোনও সুরাহা মেলেনি। এখন বিজেপি প্রার্থী কেন এসেছেন? আর মিডিয়াই বা নিয়ে এসেছেন কে? এরপরই এলাকাবাসীকে ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ করে বাহিনী।

সপ্তম দফা নির্বাচনে সকাল থেকেই ফুল ফর্মে ছিলেন আসানসোল দক্ষিণের বিজেপি প্রার্থী অগ্নিমিত্রা পাল (agnimitra paul)। সারাদিন আসানসোলের বিভিন্ন বুথে বুথে গিয়ে ঘুরে দেখলেন নির্বাচনী কাজ। আর সেখান থেকেই বুথের ২০০ মিটারের মধ্যে থাকার, এমনকি মাথায় মমতা ব্যানার্জির ছবি দেওয়া টুপি পরে বুথে বসার অভিযোগ তুললেন তৃণমূলের এজেন্টের বিরুদ্ধে।

বুথের ২০০ মিটারের মধ্যেই মাংস রান্না করে ভোটদের খাওয়ানোর অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। আসানসোলে ২৩৯ নম্বর বুথের কাছে হানা দিতেই তিনি দেখেন, সেখানে ২০০ মিটারের মধ্যে মাংস রান্না করছে তৃণমূলের সদস্যরা। অভিযোগ ভোটারদের মাংস ভাত খাইয়ে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে তৃণমূল।

সেই জায়গায় বসেই সংশ্লিষ্ট প্রশাসনিক আধিকারিকদের ফোন করেন অগ্নিমিত্রা পাল। ফোনে জানান, তাঁকে সেখানে দেখা মাত্রই ৫০ জন ব্যক্তি সেখান থেকে পালিয়ে যান। সেখানে বেশ কয়েকটি বুথ স্লিপ পড়ে রয়েছে। এমনকি নির্বাচন কমিশনেও এবিষয়ে অভিযোগ জানান তিনি।

অন্যদিকে আসানসোল দক্ষিন কাঁকড়ডাঙা গ্রামের একটি বুথের ১০০ মিটারের মধ্যে এক তৃণমূল কর্মীকে স্কুটি নিয়ে দাঁড়াতে দেখেন অগ্নিমিত্রা পাল। তাঁকে দেখেই সেই তৃণমূল কর্মী পালাতে গেলে, তাঁর স্কুটির চাবি কেড়ে নেয় বিজেপি কর্মী সদস্যরা।

আবার, আসানসোলের একটি বুথে মমতা ব্যানার্জির ছবি দেওয়া টুপি পরে বুথে বসার অভিযোগ তোলেন এক তৃণমূলের এজেন্টের বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, ওই এজেন্টের টুপি খুলিয়েও ছাড়েন তিনি। তাঁর অভিযোগ, এইভাবে বুথের মধ্যে কোন রাজনৈতিক দলের লোগো, ফেট্টি এসব পরে আসা যায় না।

Related Articles

Back to top button