Press "Enter" to skip to content

বিজেপির নেতাকে অপহরণ করার দায়ে জঙ্গির পরিবারকে থানায় তুলে আনল পুলিশ, বাধ্য হয়ে নেতাকে ছেড়ে দিলো জঙ্গি কম্যান্ডার

শেয়ার করুন -

শ্রীনগরঃ জম্মু কাশ্মীর পুলিশ (Jammu Kashmir Police) ভারতীয় জনতা পার্টির (Bharatiya Janata Party) অপহৃত হওয়া নেতা মেহারজউদ্দিন মল্লাকে (Mehrajuddin Malla) জঙ্গিদের কবল থেকে ছাড়াতে সক্ষম হয়েছে। আর এরজন্য পুলিশ জঙ্গি কম্যান্ডারের পরিবারের উপর চাপ সৃষ্টি করেছিল। মল্লাকে কাশ্মীরের বারামুলা জেলা থেকে বুধবার সকাল কয়েকজন অজ্ঞাত পরিচয় দুষ্কৃতী অপহরণ করে নিয়ে যায়। পুলিশ তৎক্ষণাৎই ঘটনার তদন্তে নামে। আধিকারিকরা জানান, বিজেপির নেতা মেহরাজউদ্দিন মল্লাকে বারামুলার জেলার রফিয়াবাদ এলাকার মরজীগুন্ড এলাকা থেকে অপহরণ করা হয়েছিল। উনি তখন সাপোরের দিকে যাচ্ছিলেন। পুলিশ জানায়, তৎকাল অ্যাকশন নিয়ে ১২ ঘণ্টার ভিতরে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে বিজেপির নেতাকে খুঁজে পাওয়া যায়।

উল্লেখ্য, পুলিশ এটা জানত যে সাপোর আর বান্দিপোরা এলাকায় জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তইবা অ্যাক্টিভ আছে। আর সেই কারণে পুলিশ সংগঠনের কম্যান্ডার সাজ্জাদ হায়দারের পরিবারকে থানায় ডেকে আনে আর গোটা দিন তাদের বসিয়ে রাখা হয়। সুত্র থেকে জানা যায় যে, পুলিশ জঙ্গিদের হুমকির সুরে বলেছিল যে, যদি বিজেপির নেতাকে না ছাড়া হয় তাহলে তাঁর পরিবারের সমস্যা বাড়বে। জানা যায় যে, মল্লা বুধবার নিজের বন্ধুদের সাথে দেখার করার জন্য সাপোরে যাচ্ছিলেন আর সেই সময়ই জঙ্গিরা ওনাকে অপহরণ করে। জঙ্গিরা বিজেপির নেতাকে মারধরও করে/ এরফলে তিনি বেশ আহত হয়েছে। জঙ্গিদের কবল থেকে উদ্ধার করানোর পর পুলিশ বিজেপি নেতাকে জিজ্ঞাসাবাদও করে।

এই বিষয়ে তথ্য দিয়ে কাশ্মীরের আইজি বিজয় কুমার বলেন, মেহারাজউদ্দিন মল্লা বিজেপির নেতা তথা বারামুলার বাতরগম নগর সমিতির সহ সভাপতিকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। যদিও এটা জানা যায়নি যে পুলিশ ওনাকে কোথা থেকে উদ্ধার করেছে।

মল্লাকে উদ্ধার করার খবর পাওয়ার পর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং ট্যুইট করে লেখেন, ‘এটা জেনে আমি খুব খুশি যে আজ সকালে অপহৃত বিজেপির নেতা বাড়ি ফিরে এসেছেন।” উল্লেখ্য কিছুদিন আগে জম্মু কাশ্মীরের বান্দিপোরা জেলায় জঙ্গিদের গুলিতে ওয়াসিম বারি নামের এক বিজেপির নেতা প্রাণ হারিয়েছিলেন।