নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

আমাকে মারার ক্ষমতা নেই, তাই ওদের মারছে! আহতদের সাথে দেখা করে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন শুভেন্দু

তমলুকঃ গতকাল নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) অরাজনৈতিক সভায় যোগ দিতে গিয়ে তৃণমূলের হা’ম’লা’র শিকার হয়েছিলেন কয়েকজন বিজেপি কর্মী। আহতদের মধ্যে অনেকেই ভর্তি হাসপাতালে। আজ সকালে হাসপাতালে গিয়ে তাঁদের সাথে দেখা করেন শুভেন্দু অধিকারী। আহত বিজেপি কর্মীদের সাথে দেখা করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দেন তিনি।

তৃণমূল থেকে বিজেপিতে আসার পর পূর্ব মেদিনীপুরে একাধিক রোড শো আর জনসভা করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। সারাও মিলেছে ব্যাপক। প্রতিটি সভা আর রোড শো থেকে শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন তিনি। আবার তৃণমূলের নেতারা শুভেন্দুকে একের পর এক আক্রমণ করে গিয়েছেন।

গতকাল নন্দীগ্রামে শুভেন্দুর অরাজনৈতিক সভায় যোগ দিতে যাওয়ার সময় ভূতামোড়ে তৃণমূলের হাতে বিজেপির কর্মীদের আক্রান্ত হওয়ার অভিযোগ ওঠে। বিজেপির কর্মীদের বাসেও ভা’ঙ’চু’র চালানোর অভিযোগ ওঠে শাসক দলের বিরুদ্ধে। তৃণমূলের এই হা’ম’লা’য় ১৫ জন বিজেপি কর্মী গুরুতর আহত হন। তাঁদের সবাইকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আজ সকালে সেই আহত বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে দেখা করতে নন্দীগ্রাম সুপারস্পেশ্যালিটি হাসপাতালে যান শুভেন্দু। তাঁদের শারীরিক অবস্থার খবরও নেন। সেখান থেকে তিনি তমলুকের দিকে রওনা দেন। তমলুক হাসপাতালে আহত বিজেপি কর্মীদের সাথে দেখা করেন তিনি। প্রিয় নেতাকে চোখের সামনে পেয়ে মনোবল চাঙ্গা হয় আহত কর্মীদের।

বিজেপির কর্মীদের উপর হামলার প্রতিবাদে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, সবারই রাজনীতি আর ধর্ম পালন করার অধিকার আছে। ধর্মীয় অনুষ্ঠানেও এখন বাধা দিচ্ছে ওঁরা। তৃণমূলের ক্ষমতা নেই যে আমাকে মারবে, তাই আমাদের নিরীহ কর্মীদের মারছে।”

 

Related Articles

Back to top button