নতুন খবররাজনীতি

দেশের সমস্ত মাদ্রাসা বন্ধ করে দেওয়া উচিৎ, ওখানে কট্টরপন্থী তৈরি হয়ঃ বিজেপির সাংসদ অজয় নিশাদ

নয়া দিল্লীঃ মুজফরপুরের বিজেপি (Bharatiya Janata Party) সাংসদ অজয় নিশাদ (Ajay Nishad) আরও একবার বিতর্কিত বয়ান দিয়ে শিরোনামে উঠে এলেন। সাংসদ বলেন, দেশজুড়ে চলা মাদ্রাসা (Madarsa) শিক্ষা প্রণালী বন্ধ করে দেওয়া উচিৎ। আর সমস্ত মাদ্রাসা গুলোয় ওয়ান নেশন ওয়ান এডুকেশনের আওতায় স্কুল খোলা উচিৎ।

সাংসদ বলেন, এই মাদ্রাসা গুলোতে পড়াশোনার নামে নিরীহ বাচ্চাদের ঘৃণার পাঠ পড়ানো হয়। তাদের শুধু ইসলাম ধর্ম আপন করার কথা বলা হয় আর অন্য ধর্মের মানুষের থেকে দূরে থাকার শিক্ষা দেওয়া হয়। এরজন্য দেশের সমস্ত মাদ্রাসা গুলোকে অবিলম্বে বন্ধ করা উচিৎ।

ঠিক এক সপ্তাহ আগে বিজেপির এই সাংসদ বলেছিলেন, তাবলীগ জামাত দেশজুড়ে করোনা ছড়িয়ে দেশের অবস্থা শোচনীয় করে দিয়েছে। এমনকি উনি তাবলীগ জামাতের সদস্যদের জঙ্গি ঘোষণা করে তাদের সাজা দেওয়ার কথাও বলেছিলেন।

মাদ্রাসার শিক্ষায় কটাক্ষ করে সাংসদ বলেন, মাদ্রাসায় পড়া ছাত্ররা কখনোই দেশের উন্নয়নে যোগদান দেয় না, কারণ সেখানে শুধু ধার্মিক শিক্ষা দেওয়া হয়। এই বয়ানের জন্য মুজফরপুর আদালতে অজয় নিশাদের বিরুদ্ধে চার চারটি মামলা দায়ের হয়েছে।

মামলা গুলো নিয়ে অজয় নিশাদকে জিজ্ঞাসা করা হলে উনি বলেন, আমি মামলা আর ভোটের ভয় পাই না। আর উনি নিজের প্রথম এবং সম্প্রতি বয়ান নিয়ে আক্ষেপও জাহির করতে চান না। অজয় নিশাদ বলেন, মাদ্রাসার শিক্ষা মুসলিমদের কখনো উন্নত করতে পারবে না। কারণ মাদ্রাসায় পড়াশোনার নামে জঙ্গি আর কট্টরপন্থী তৈরি হয়।

Related Articles

Back to top button