নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

রাজীবের সঙ্গে সম্পর্ক মধুর হতে পারে বিজেপির, ইঙ্গিতপূর্ণ বয়ান দিলীপ ঘোষের

রায়গঞ্জঃ একুশের নির্বাচনে হারের পর রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Rajib Banerjee) আর বিজেপির (Bharatiya Janata Party) কোনও কিছুতেই দেখা যায়নি। অনুপস্থিত ছিলেন একাধিক বৈঠকেও। এরপরই আচমকাই একদিন বিস্ফোরক পোস্ট করে ঘুরপথে বিজেপির সমালোচনা করে রাজ্য রাজনীতিতে তুমুল জল্পনার সৃষ্টি করেছিলেন। আর সেই পোস্টের পর তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষের বাড়িতে গিয়ে সাক্ষাৎ করায় সেই জল্পনা আরও উস্কে গিয়েছিল। নির্বাচনী প্রচারে শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বাংলায় পরিবর্তন আনার ডাক দেওয়া রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় এখন নীরব।

এবার নীরব রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে নীরবতা ভেঙে বড় বয়ান দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। এদিন পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে উত্তর দিনাজপুর জেলায় বিজেপি নেতৃত্বদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। সেই বৈঠকে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে দলছুটদের নিয়ে মুখ খোলেন তিনি। সাংবাদিকদের সামনে দিলীপবাবু বলেন, রাজীবের সঙ্গে কথা হচ্ছে। তাঁকে বোঝানোও হচ্ছে বলে জানান দিলীপবাবু।

দলছুটদের নিয়ে দিলীপবাবু বলেন, ‘দল ছাড়ার প্রবণতাটা সাময়িক। নির্বাচনের আগে লক্ষ লক্ষ মানুষ বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। অনেকেই পরিস্থিতির চাপে পড়ে মুখ ঘুরিয়ে নিয়েছেন। আগামী দিনে হয়ত আরও কয়েকজন যেতে পারেন। ওঁরা সমানভাবে লড়াই করতে পারছে না বলেই যাচ্ছে। আমরা লড়াই করতে পেরেছি বলেই মানুষ আমাদের ভোট দিয়ে বিরোধী আসনে বসিয়েছে।”

বিজেপিতে থেকেও যারা দলের সমালোচনা করছে তাঁদের নিয়ে প্রশ্ন করা হলে দিলীপবাবু বলেন, ‘দলের নির্দিষ্ট নিয়ম আছে। অনেককেই সতর্ক করা হয়েছে আর শোকজ করা হয়েছে। অনেককেই সাসপেন্ড করা হয়েছে। আমরা সফল হতে পারিনি বলেই ওঁরা হতাশা থেকে এসব করছে। আমরা সবার সঙ্গে কথা বলছি, সবাইকে বোঝানোর চেষ্টা করছি। রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে এখনও শোকজ করা হয়নি। ওনার সঙ্গে কথা চলছে। এরকম পরিস্থিতিতে যারা লড়াই করেন নি, তাঁদের অনেক সমস্যা হচ্ছে। তাঁদের মনের জোর বাড়ানোর চেষ্টা করছি।”

আরেকদিকে, রাজীবদের দলে ফেরা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। তিনি বলেছেন, ‘যারা এখন তৃণমূলে ফিরতে চাইছে, তাঁদের ছাড়াই ভোটে জিতেছি আমরা। ওদের এখন দলে ফেরত নিলে যারা ভোটে অক্লান্ত পরিশ্রম করে দলকে জিতিয়েছে, তাঁদের সঙ্গে বঞ্চনা করা হবে।” রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে কুণালবাবু বলেছেন, ভোটের আগে চাটার্ড প্লেনে করে দল ছেড়ে এখন টোটো করে দলে ঢুকতে চাইছেন।

Related Articles

Back to top button