নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

রাজীবের উপর শাস্তির খাড়া, মুকুল রায়ের পর তাঁকেও হতে হল ঘরছাড়া

কলকাতাঃ বিধানসভা ভোটের আগে সগর্বে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। ডোমজুড় থেকে প্রার্থীও করা হয়েছিল ওনাকে। কিন্তু সেখানে লজ্জাজনক হারের সম্মুখীন হন তিনি। নিজের হার আর বিজেপির বাংলা দখলের স্বপ্ন ব্যর্থ হতেই গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে দূরত্ব বাড়াতে থাকেন প্রাক্তন মন্ত্রী। উনি এখন কোনদলে বিজেপি তা এখনও ঠাউর করে উঠতে পারেনি।

রাজীবের অবস্থান বুঝতে না পারলেও প্রাক্তন মন্ত্রীকে দল থেকে ছাঁটার প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে নেওয়া পদক্ষেপই এটা বুঝিয়ে দিয়েছে যে, তাঁরা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে আর টানতে চাইছে না।

উল্লেখ্য, হেস্টিংসে বিজেপির দফতরে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘর থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে তাঁর নেম প্লেট। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের পাশেই ছিল রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই ঘর। কিন্তু আচমকাই বিজেপির দফতরের ৮১১ নম্বর ঘর থেকে সরিয়ে ফেলা হল রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামের ফলক। আপাতত ওই ঘরে নতুন করে আর কারও নামের ফলক বসানো হচ্ছে না। সূত্র অনুযায়ী, দলের নির্দেশের পরই রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে ঘরছাড়া করা হয়েছে।

বিজেপির এই কাজে এটুকু স্পষ্ট যে, তাঁরা আর রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে গুরুত্ব দিচ্ছে না। এবং তাঁকে আর দলের টানতেও চাইছে না। ঘর থেকে নামের ফলকের পাশাপাশি যেকোনও মুহূর্তে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কেও দল থেকে সরিয়ে দিতে পারে বিজেপি।

উল্লেখ্য, বিধানসভ্য ভোটে হারের পর থেকে দলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ানোর পাশাপাশি বিজেপির বিরোধিতায় সরব হতে দেখা গিয়েছে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তবে, এতকিছুর পরেও বিজেপি তাঁকে শাস্তি দেয়নি। তবে এখন রণনীতি বদলে একেবারে দল থেকেই ছেঁটে ফেলা হচ্ছে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

উল্লেখ্য, দু’দিন আগেই কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক মুকুল রায়কে ঘরছাড়া করা হয়েছে। ওনার দিল্লির আবাস থেকে সমস্ত আসবাবপত্র, গাড়ি এমনকি দেহরক্ষীদেরও বের করে দেওয়া হয়েছে। বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার কারণেই ওনাকে সরকারি বাড়ি ছাড়তে হয়েছে। আর এবার রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ও ঘরছাড়া হলেন।

Related Articles

Back to top button