নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

উত্তরকন্যা অভিযানে মৃত বিজেপি কর্মীর দেহে পাওয়া গেল অজস্র পেলেটের চিহ্ন! কাঠগড়ায় পুলিশ

শিলিগুড়িঃ আজ উত্তরকন্যা অভিযানে মৃত্যু হয়েছে উলেন রায় (৫০) নামের এক বিজেপির কর্মীর। মৃত বিজেপির কর্মীর বাড়ি শিলিগুড়ির গাজলডোবা এলাকায়। মৃত উলেন রায়ের দেহে অসংখ্য পেলেটের ক্ষত পাওয়া গিয়েছে বলে দাবি করেছেন চিকিৎসক। বিজেপির তরফ থেকে উলেন রায়ের মৃত্যুর জন্য সরাসরি পুলিশকেই দায়ি করা হয়েছে। যদিও সমস্ত অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে পুলিশ। পুলিশের তরফ থেকে ফেসবুকে একটি পোস্টের মাধ্যমে জানানো হয়েছে পুলিশ বিজেপির অভিযানে কোনোরকম লাঠিচার্জ বা আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করেনি।

পুলিশ জানিয়েছে, ‘ আজ শিলিগুড়িতে, একটি রাজনৈতিক দলের সমর্থকরা তাদের প্রতিবাদ কর্মসূচির সময় মারাত্মক হিংসাত্মক কার্যকলাপ করেছেন। তারা অগ্নিসংযোগ, ইট-বৃষ্টি, গুলি চালানো এবং সরকারী সম্পত্তি ভাঙচুর করছেন।পুলিশ সংযম দেখিয়েছে এবং লাঠিচার্জ বা আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করেনি। উত্তেজিত জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে কেবল জল কামান এবং কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করা হয়েছে। একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হচ্ছে। মৃত্যুর প্রকৃত কারণ ময়নাতদন্তের পরেই জানা যাবে।”

আরেকদিকে, বিজেপির তরফ থেকে তাদের কর্মীর মৃত্যুর প্রতিবাদে আগামীকাল উত্তরবঙ্গ বন্ধের ডাক দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার দলীয় কর্মীর মৃত্যুর প্রতিবাদে ১২ ঘণ্টা উত্তরবঙ্গ বন্ধের ডাক দিয়েছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে অভিযোগ করে বলা হয়েছে যে, পুলিশের বেপরোয়া লাঠি ও রাবার বুলেটের আঘাতে গুরুতর আহত হন উলেন রায়। এরপর ওনাকে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়। সেখানেই ওনার মৃত্যু হয়।

আরেকদিকে মৃতের ভাই জানিয়েছেন, ‘দাদা একদম ব্যারিকেডের সামনে চলে গিয়েছিলেন। সেখানে পুলিশের রাবার বুলেটের আঘাতে গুরুতর ভাবে আহত হন তিনি। এরপর ওনাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, কিন্তু সেখান থেকে ওনাকে আর জীবিত বাড়িতে ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয়নি।”

Related Articles

Back to top button