Press "Enter" to skip to content

নুসরত জাহানের সংসদীয় এলাকায় তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে আদিবাসী মহিলাকে গণধর্ষণ করার অভিযোগ

শেয়ার করুন -

কলকাতাঃ দিনের পর দিন রাজ্যে বাড়ছে মহিলা নির্যাতনের সংখ্যা। এবার এক আদিবাসী মহিলাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করল একদল দুষ্কৃতী। বসিরহাটের হাড়োয়া থানা এলাকার গোপালপুর গ্রাম মুন্সিঘেরি ছয়ানি বাজার এলাকার এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। ধর্ষণের প্রতিবাদে প্রতিবাদে নেমেছেন এলাকার মহিলারা। আদিবাসী মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল (All India Trinamool Congress) আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে।

বেশ কয়েকদিন ধরেই রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত ছিল গোটা এলাকা। গতকাল রাতে বাড়ির পাশে বোমার আওয়াজ পেয়ে নির্যাতিতার স্বামী ঘটনার খবর নিয়ে বাড়ি থেকে বের হন। আর সেই সুযোগেই দুষ্কৃতীরা বাড়িতে চরাও হয়ে মহিলাকে তুলে নিয়ে যায় একটি ফাঁকা মাঠে। সেখানেই ওই আদিবাসী মহিলাকে ধর্ষণ করে ফেলে রাখে দুষ্কৃতীরা।

সকাল বেলায় স্থানীয়রা ওই মহিলাকে অর্ধনগ্ন অবস্থায় মাঠে পড়ে থাকতে দেখে তাঁকে উদ্ধার করে। এরপর ওনারা হাড়োয়া থানায় খবর দেন। পুলিশ এসে ওই মহিলাকে হাড়োয়া হাসপাতালে ভর্তি করায়। নির্যাতিত তিনজনের নাম নেন। উনি জানান, মন্টু কাহার, কেলো দাস আর শুকদেব দাস সমেত কয়েকজন তাঁকে হাত, মুখ ধর্ষণ করে। এলাকাবাসী জানান, অভিযুক্তরা সবাই তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতী।

এলাকাবাসীরা জানান, এলাকায় যখন গণ্ডগোল চলছিল তখন পুলিশ সেখানেই ছিল পুলিশের সামনে থেকেই ওই আদিবাসী মহিলাকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করা হয়। গ্রামবাসীরা পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেন, পুলিশ ঘুষ খেয়ে এই ঘটনা ঘটিয়েছে। এই ঘটনার পর উত্তেজনা ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়।