নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

৪ হাজার মহিলা জওয়ান আছে, কোনদিনও এমন অভিযোগ পাইনি! উদয়ন গুহকে জবাব BSF-র

কলকাতাঃ  বাংলায় (West Bengal) বিএসএফের (Border Security Force) এলাকা বৃদ্ধি রুখতে মঙ্গলবার বিধানসভায় বিল পেশ হয়েছিল। আর সেই বিল নিয়ে আলোচনার সময় তৃণমূলের (All India Trinamool Congress) নবনির্বাচিত বিধায়ক উদয়ন গুহ (Udayan Guha) এক বিতর্কিত মন্তব্য করে শিরোনামে উঠে আসেন। উদয়ন গুহ বলেন, ‘যারা BSF-র অত্যচার চোখে দেখেনি, তাঁরা কোনোদিনও বিশ্বাস করতে পারবে না। BSF-র ক্ষমতা বাড়িয়ে দ্বৈত শাসন আনার চেষ্টা করছে বিজেপি।” তিনি বলেন, ‘সীমান্তবর্তী এলাকায় যারা থাকেন, তাঁদের জিজ্ঞাসা করুন, BSF কী সেটা বুঝে যাবেন। সন্তানদের সামনে BSF তল্লাশি করার নামে তাঁর মায়ের গোপনাঙ্গে পর্যন্ত হাত দিয়ে দেয়।”

তৃণমূল বিধায়কের এই মন্তব্যে রাজ্য রাজনীতিতে ঝড় ওঠে। আর এই নিয়েই বুধবার বিএসএফ-এর এডিজি ওয়াই বি খুরানিয়া প্রতিক্রিয়া দেন। এডিজি বিধায়ক উদয়ন গুহর অভিযোগ সরকারি খারিজ করে দেন। তিনি বলেন, ‘সীমান্ত সুরক্ষা বাহিনীর দিকে ওঠা এই অভিযোগ খুবই দুর্ভাগ্যজনক। আমাদের কাছে চার হাজারেরও বেশি মহিলা জওয়ান রয়েছে। এমন কোনও অভিযোগ এখন পর্যন্ত আমাদের কাছে কোনোদিনও আসেনি।

এডিজি খুরানিয়া বলেন, আমাদের কাজ সীমান্তে অনুপ্রবেশ রোখা। আমাদের ক্ষমতা সীমাবদ্ধ। তল্লাশি, গ্রেফতার, বাজেয়াপ্ত আমরা করতে পারি কিন্তু আমরা কোনও তদন্তকারী দল নই। আমাদের কাছে তদন্ত করার কোনও ক্ষমতা নেই। আর এই কারণেই সীমান্ত থেকে কাউকে গ্রেফতার করা হলে তাকে রাজ্য প্রশাসনের হাতে তুলে দিই।”

উল্লেখ্য, বাংলা সহ দেশের বিভিন্ন রাজ্যে সীমান্ত সুরক্ষা বাহিনীর  এক্তিয়ার বৃদ্ধি করেছে কেন্দ্র।এখন থেকে বিএসএফ রাজ্যের ৫০ কিমি ভিতরে ঢুকে তল্লাশি, পাকড়াও অভিযান চালাতে পারবে। আর কেন্দ্রের এই নীতির বিরুদ্ধেই ফুঁসছে সব অবিজেপি শাসিত রাজ্য। বাদ যায়নি পশ্চিমবঙ্গও। বিএসএফের ক্ষমতা বৃদ্ধির প্রতিবাদে মঙ্গলবার বিধানসভায় প্রস্তাবও পেশ করেছিল রাজ্য সরকার। সেই প্রস্তাব নিয়ে আলোচনাতেই তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে তুমুল সংঘাতের সৃষ্টি হয়। এরপরই তৃণমূল বিধায়ক বিতর্কিত মন্তব্য করেন।

Related Articles

Back to top button