নতুন খবরভারতবর্ষ

আমরা সুপ্রিম কোর্টকে মানি না, আফজল গুরু নির্দোষ ছিল: CAA এর বিরোধিতা করতে গিয়ে বললেন মহিলা

নিয়ে দেশজুড়ে যে বিতর্ক চলছে তা থামার নাম নিচ্ছে না। একের পর এক ভিডিও সামনে আসছে যেখানে CAA ও এর বিরোধের আসল উদেশ্য প্রকাশ পাচ্ছে। এই বিরোধের পেছনে পপুলার ফ্রন্টের হাত রয়েছে তা আগেই ফাঁস হয়েছে। শাহীন বাগে CAA/ এর বিরুদ্ধে যে প্রদর্শন দেখা মিলেছে তাতে টাকার বিনিময়ে মহিলাদের বসানো হয়েছিল বলে দাবি উঠেছে। মাথা পিছু ৫০০ টাকার বিনিময়ে মুসলিম মহিলারা বিরোধ প্রদর্শন দেখিয়েছেন বলে খবর মিলেছে। এখন এক CAA নামে প্রদর্শনকারী যুবতী তার ভাষণে এমন কথা বলেছে যা পুরো দেশকে আক্রোশিত করেছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এক ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যেখানে এক যুবতী সুপ্রিম কোর্টকে না মানার কথা বলেছে।

মঞ্চ থেকে দাঁড়িয়ে CAA এর বিরোধিতা করা কালীন মুসলিম যুবতী বলেছেন যে তার সুপ্রিম কোর্টের উপর কোনো ভরসা নেই। সে আরো বলেছে যে, ” আমরা CAA /NRCএর জন্য রাস্তায় নেমেছি তবে আরো অনেক কারণ আছে। আমরা কোনো কিছুর উপর ভরসা করতে পারছি না। আমরা সরকারের উপর ভরসা করি না, আমার সুপ্রিম কোর্ট এর উপর ভরসা করি না।”

মুসলিম যুবতী আরো বলেছে যে, এটা সেই সুপ্রিম কোর্ট যে নির্দোষ আফজল গুরুকে ফাঁসির সাজা দিয়েছে। এটা সেই সুপ্রিম কোর্ট যে রামজন্মভূমির তৈরির নির্দেশ দিয়েছে। আমরা সুপ্রিম কোর্টের কাছে থেকে কোনো আশা রাখি না। এর আগে JNU ছাত্র ও শাহীন বাগ মাস্টার মাইন্ড সারজিল ইমাম তার ভাষণে এই বিরোধিতার মূল উদেশ্য ও পরবর্তী টার্গেট ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেছে। JNU থেকে এতদিন শুধুমাত্র ‘ তেরে টুকরে হঙ্গে’ শ্লোগান শোনা যেত। তবে JNU এর ছাত্র সারজিল ইমাম ভারতকে ভাঙার পুরো পরিকল্পনা করে ফেলেছে তা সে নিজের মুখেই প্রকাশ করেছে।

 

 

সারজিল ইমাম ভিড়ের সামনে বলেছে ‘আমরা উত্তর-পূর্ব কে ভারত থেকে সম্পূর্ণ আলাদা করে দিতে পারি। সম্পূর্ণভাবে না পারলেও আমরা কিছুদিনের জন্য আলাদা তো করতেই পারি। আসাম কে আলাদা করা আমাদের দায়িত্ব।’ সারজিল ইমাম আরো বলেছে যে, আসাম ও ভারতকে আলাদা করতে হবে, কেটে আলাদা করতে হবে।

Back to top button
Close