নতুন খবরভারতবর্ষ

“ভারত দেশকে রোহিঙ্গাদের রাজধানী হতে দেওয়া যাবে না”- আদালতে বলল কেন্দ্র সরকার

রোহিঙ্গা ইস্যুকে কেন্দ্র করে দেশে নতুন বিতর্ক তৈরি হয়েছে। আসলে ভারতের জন্য অবৈধ অনুপ্রবেশকারীরা, বিশেষত রোহিঙ্গারা বিপদজ্জনক তা আগেই জানিয়ে সুরক্ষা বিশেষজ্ঞরা। যদিও বামপন্থী এবং স্বঘোষিত লিবারেলরা কোনোভাবেই রোহিঙ্গাদের দেশে থেকে তাড়াতে দিতে রাজি নয়। আসলে কয়েক সপ্তাহ আগেই জম্মু থেকে প্রায় ১৫০ জন রোহিঙ্গাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তবে এই রোহিঙ্গাদের মুক্তির জন্য মাঠে নেমে পড়েছেন আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ। তার বক্তব্য মায়ানমার রোহিঙ্গাদের সুরক্ষার জন্য উপযুক্ত ব্যাবস্থা গ্রহণ করেননি। তাই রোহিঙ্গাদের ভারত থেকে বের করার প্রক্রিয়া বন্ধ হোক এবং গ্রেফতার হওয়া রোহিঙ্গাদের মুক্তি দেওয়া হোক।

অন্নদিকে কেন্দ্র সরকার এই ইস্যুতে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেছে। কেন্দ্র সরকার সুপ্রিমকোর্টকে বলেছে, ভারত দেশ কোনোভাবেই রোহিঙ্গাদের রাজধানী হয়ে উঠতে পারে না। অর্থাৎ ভারতকে যেন রোহিঙ্গারা নিজেদের আড্ডাখানা না বানিয়ে ফেলে তার উপর জোর দিয়েছে কেন্দ্র।

প্রশান্ত ভূষণ বলেন, মায়ানমারে রোহিঙ্গা সুরক্ষিত নয় তাই দেশের মানবিকতা দেখানো প্রয়োজন। মায়ানমারের রোহিঙ্গা শিশুদের উপরেও অত্যাচার করা হয় বলে মন্তব্য করেন প্রশান্ত ভূষণ।

অন্যদিকে এর পাল্টাকেন্দ্রের পক্ষ থেকে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা তার বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, এটা মায়ানমারের সমস্যা। আমরা দেশকে রোহিঙ্গাদের রাজধানী হতে দিতে পারি না। মায়ানমারের সাথে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে এবং তাদের সেখানের নাগরিকত্ব প্রমান হলেই ফেরত পাঠানো হবে।

Related Articles

Back to top button