Press "Enter" to skip to content

ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভায় শিলমোহর পড়ল চীফ অফ ডিফেন্স পদে

শেয়ার করুন -

স্থলসেনা, নৌসেনা আর বায়ুসেনার মধ্যে সামাঞ্জস্য ঠিক করার জন্য দেশের প্রথম চীফ অফ ডিফেন্স স্টাফ CDS এর পদের খুব শীঘ্রই ঘোষণা হতে পারে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর অনুযায়ী, মোদী ক্যাবিনেট চীফ অফ ডিফেন্স স্টাফের পদ বানানোর জন্য সুরক্ষা মামলায় মন্ত্রীমণ্ডল সমিতি (CCS) এর রিপোর্ট স্বীকার করে নিয়েছে। জাতীয় নিরপত্তা উপদেষ্টা (NSA) অজিত ডোভাল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকে হওয়া হাই লেভেল মিটিংয়ে রিপোর্ট পেশ করেছিলেন। এই মিটিংয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ ছাড়াও তিন সেনার প্রধান উপস্থিত ছিলেন।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর বলেন, চীফ অফ ডিফেন্স স্টাফ তিনটি সেনার প্রধান হবেন আর তিনি চার স্টার সম্পন্ন জেনারেল হবেন। দেশের প্রথম CDS এর জন্য বর্তমান স্থল সেনা জেনারেল বিপিন রাওয়াতের নাম সবার উপরে আছে। শোনা যাচ্ছে যে, CDS সরাসরি প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে রিপোর্ট পেশ করবেন আর সুরক্ষা মামলায় ক্যাবিনেট কমিটিতে সেনাকে নিয়ে পরামর্শ দেবেন।

কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, উচ্চ সুরক্ষা ব্যাবস্থার দিক থেকে এটা একটি ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত। আপনাদের জানিয়ে রাখি, ১৯৯৯ সালে কার্গিল যুদ্ধের পর তৎকালীন ডেপুটি মুখ্যমন্ত্রী লাল কৃষ্ণ আদবানির নেতৃত্বে গঠিত গ্রুপ অফ মিনিস্টার (GOM) চীফ অফ ডিফেন্সের পদের জন্য সুপারিশ করেছিল। তিন সেনার মধ্যে সামাঞ্জস্য বজায় রাখার জন্য এই সুপারিশ করা হয়েছিল। স্বাধীনতা দিবসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী পদ বানানোর জন্য ঘোষণা করেছিলেন।

আমেরিকা, চীন, ব্রিটেন, জাপান সমেত বিশ্বের অনেক দেশেই চীফ অফ ডিফেন্স স্টাফের মতো ব্যাবস্থা রয়েছে। ন্যাটো দেশের সেনাতেও এই পদ আছে। শোনা যাচ্ছে যে বিস্তৃত ভূমি, দীর্ঘ সীমান্ত, উপকূলবর্তী সীমা আর জাতীয় সুরক্ষা নির্ধারণ করার জন্য ভারতের পাশে এককৃত প্রতিরক্ষা প্রণালির জন্য চিফ অফ ডিফেন্স পদটি খুব প্রয়োজনীয় প্রয়োজন।