আন্তর্জাতিকনতুন খবর

WhatsApp ব্যবহার করলেই বিপদ, মুসলিম মহিলাদের প্রি-ক্রিমিনাল বলে গ্রেফতার করা হচ্ছে চীনে

নয়া দিল্লিঃ চীনে মুসলিমদের (Muslims in China) উপর অত্যাচার নিয়ে আরও একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এসেছে। একটি বইতে দাবি করা হয়েছে যে, চীনের কমিউনিস্ট সরকার হোয়াটসঅ্যাপ (WhatsApp) ব্যবহার করলেই মুসলিম মহিলাদের গ্রেফতার করছে। সরকার দ্বারা ওই মহিলাদের প্রি-ক্রিমিনালস আখ্যা দেওয়া হয়েছে। বলে দিই, এর আগেও বহুবার চীন থেকে উইঘুর মুসলিমদের উপর অত্যাচারের নানান কাহিনী সামনে উঠে এসেছে।

‘In The Camps: China’s High-Tech Penal Colony’ নামের একটি বইতে চীনের নতুন এই কাণ্ডের খোলাসা করা হয়েছে। ওই বইতে ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর উদাহরণ দেওয়া হয়েছে। ওই ছাত্রীকে সম্প্রতি VPN ব্যবহার করে নিজের স্কুলের ইমেল অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই ছাত্রী চীনের জিনজিয়াং প্রান্ত থেকে নিজের হোমওয়ার্ক সাবমিট করার জন্য অ্যাকাউন্টটি খুলেছিল।

বিজনেস ইনসাইডারে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ভেরা ঝাও নামের ওই ছাত্রীকে গ্রেফতার করার সময় বলা হয়েছিল যে, তাঁকে রি-এডুকেশন ক্লাসে পাঠানো হচ্ছে। ঝাও জানায়, তাঁকে দীর্ঘদিন কয়েদ করে রাখা হয়েছিল। প্রায় ৬ মাস তাঁকে কয়েদ করে রাখা হয়েছিল বলে জানায় সে।

কয়েদ থেকে মুক্তি পাওয়ার পর ঝাও এটা বুঝে গিয়েছিল যে, সে আর স্বাধীন নেই। তাঁকে ডিজিটাল ভাবে কয়েদ করে রাখা হয়েছে। এমনকি তাঁকে মুসলিম প্রি-ক্রিমিনাল পর্যন্ত বলা হয়েছে। In The Camps: China’s High-Tech Penal Colony’ নামের বইটি সম্প্রতি লঞ্চ হয়েছে। সেখানে ঝাও ছাড়া আরও ১১ জন মুসলিম মহিলার কথা উল্লেখ রয়েছে। তাঁদের হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করার জন্য প্রি-ক্রিমিনাল আখ্যা দিয়ে গ্রেফতার করা হয়েছিল।

Related Articles

Back to top button