Press "Enter" to skip to content

ভারত ভাগের জন্য কংগ্রেসে না, হিন্দুরা দায়ী! বললেন কংগ্রেস নেতা আনন্দ শর্মা

শেয়ার করুন -

কংগ্রেস (Congress) রাজ্যসভায় চরম বিরোধিতা করল নাগরিকতা সংশোধন বিলের। কংগ্রেসের বরিষ্ঠ নেতা আনন্দ শর্মা (Anand Sharma)  বলেন, যদি সরদার প্যাটেল কখনো প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) সাথে সাক্ষাৎ করতেন, তাহলে উনি খুব দুঃখী হতেন। এমনকি মহত্মা গান্ধীও দুঃখ পেতেন। উনি বলেন কেবল মহত্মা গান্ধী, সরদার প্যাটেলের নাম নেওয়া সম্ভব না। আমি জানিনা জীবনে কি কি হতে পারে। শুনেছি আমাদের ধর্ম পুনর্জন্মে বিশ্বাসী। যদি সরদার প্যাটেল কখনো প্রধানমন্ত্রীর সামনে আসতেন, তাহলে উনি দুঃখ প্রকাশ করতেন।

গান্ধীজি তো আরও বেশি দুঃখী হতেন আর বলতেন, আমার ১৫০ তম জন্ম শত বার্ষিকী পালন করা হচ্ছে আবার এটাও করা হচ্ছে। গান্ধীজির চশমা আর ওনার নাম বিজ্ঞাপনের জন্য না। আমি আবেদন করছি যে, ওনার চশমা দিয়ে ভারতকে দেখুন, সমাজ আর গোটা বিশ্বকে দেখুন। আপনার নাগরিকতা বিল ওই চশমা দিয়ে দেখুন। উনি বলেন, অমিত শাহ ইতিহাস লেখার জন্য কাউকে প্রোজেক্ট দিয়েছেন, আমি দয়া করে বলছি যে এটা করবেন না।

উনি আরও বলেন, অফিসিয়ালি ভাবে বিনায়ক দামোদর সাভারকর ঘোষণা করেছিলেন যে, জিন্নার টু নেশন থিওরি থেকে আমার কোন আপত্তি নেই। এটা কংগ্রেসের কাজ না। আপনি দেশ ভাগের দোষ কংগ্রেস আর কংগ্রেসের নেতাদের  উপর চাপাচ্ছেন, কিন্তু কংগ্রেস দেশ স্বাধীনের জন্য দিনের পর দিন জেলে কাটিয়েছে। হিন্দু মহাসভা দেশ ভাগকে সমর্থন করেছিল। যদিও তিনি শুধু হিন্দু মহাসভা না, মুসলিম লীগের উপরেও দেশ ভাগের দায় চাপান।

উনি বলেন, কংগ্রেস প্রথম থেকেই দেশ ভাগের বিপক্ষে ছিল। মহত্মা গান্ধীর নেতৃত্বে স্বাধীনতার লড়াই লড়া হয়েছিল, সেই লড়াইতে সুভাষ চন্দ্র বসু আর সরদার প্যাটেলও ছিল। ওনার যোগদানকে অস্বীকার করা ইতিহাসকে অস্বীকার করা হবে। আপনি ওনার বিচারধারার বিরোধী হতে পারেন, কিন্তু ওনার যোগদানকে অস্বীকার করতে পারবেন না।