নতুন খবরভারতীয় সেনা

আমার ছেলে দেশের স্বার্থে শহীদ হয়েছে, আমি এটা নিয়ে গর্ব করি! চোখ মুছে বললেন শহীদ সন্তোষ বাবু’র মা

নয়া দিল্লীঃ পূর্ব লাদাখে ভারত (India) চীনের (China) মধ্যে উত্তজনা চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। সোমবার রাতে লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় হওয়া হিংসাত্মক সংঘর্ষে বিহারের ১৬ রেজিমেন্টের কমান্ডিং অফিসার কর্নেল সন্তোষ বাবু (Santosh Babu) শহীদ হন। ওনার সাথে সাথে ভারতীয় সেনার আরও দুই জওয়ানও শহীদ হন। সন্তোষ বাবু বিগত দেড় বছর ধরে চীন সীমান্তে কর্তব্যরত। কর্নেল সন্তোষ এর মা মঞ্জুলা দেবী বলেন, মঙ্গলবার সেনার তরফ থেকে ওনাকে এই খবর দেওয়া হয়েছে।

ছেলে শহীদ হওয়ার পর মা মঞ্জুলা দেবী একসময় দুঃখী, আবার একসময় খুশিও। নিজের চোখের জল মুছতে মুছতে মঞ্জুলা দেবী বলেন, ‘আমি গর্ব বোধ করি যে, আমাদের ছেলে দেশের জন্য কুরবান হয়েছে, কিন্তু এক মা হিসেবে আমার অনেক দুঃখও আছে। ও আমার একমাত্র ছেলে ছিল” কর্নেল সন্তোষের পরিবার দিল্লীতে থাকেন। ওনার পরিবারে স্ত্রী আর দুই বাচ্চা আছে।

উল্লেখ্য, মে মাসের শুরুতে চীনের সেনা আক্রমণাত্বক রুপ ধারণ করা শুরু করে। লাদাখের চার জায়গায় পিপলস লিবারেশন আর্মির জওয়ানরা অনুপ্রবেশ চালায়। চীনের সেনা প্রচুর পরিমাণে কামান আর আর্মড বাহন নিয়ে বাস্তবিক নিয়ন্ত্রণ রেখার পাশে জড় হয়। গালওয়ান উপত্যকা আর প্যাংইয়াং লেকের দুটি মুখ্য জায়গায় দুই দেশের সেনা সামনা-সামনি চলে আসে।

ভারতীয় সেনা সোমবারের ঘটনার বিবরণ দিয়ে জানায় যে, দুই দেশের সংঘর্ষে আমাদের এক আধিকারিক এবং দুই জওয়ান শহীদ হয়েছে। আর চীনেরও অনেক ক্ষতি হয়েছে। চীনের মিডিয়া অনুযায়ী, ভারতের পাল্টা হানায় তাদের ৫ জন সেনা জওয়ান মারা গেছে আর ১১ জন আহত হয়েছে। দুই দেশের মধ্যে চলা উত্তেজনার মধ্যে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং তিন সেনার প্রধান আর চীফ অফ ডিফেন্স স্টাফের সাথে বৈঠক করেন। এরপর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে এই বিষয়ে অবগত করান।

Related Articles

Back to top button