নতুন খবরভারতবর্ষ

ভুয়ো ছবি ছড়িয়ে সেনাকে বদনাম করার চেষ্টা! হাতেনাতে ধরা পড়লেন কংগ্রেস নেতা

নয়া দিল্লীঃ লাদাখের (Ladakh) গালওয়ান উপত্যকায় ভারত আর চীনের মধ্যে হওয়া সংঘর্ষের পর কংগ্রেস ঘনিষ্ঠ ডঃ আনন্দ রাই (Anand Rai) শনিবার একজন আহত জওয়ানের ছবি শেয়ার করে দাবি করেন যে, এই জওয়ানের লাদাখে চীনের সেনার হাতে মার খেয়ে এরকম অবস্থা হয়েছে। উনি দাবি করেন যে, ওই জওয়ানের পুরো শরীরে পেরেক দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। এরপর তিনি প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন করেন যে, এই জওয়ানদের হাতিয়ার নিয়ে যেতে কেন বারণ করা হয়েছে?

আমাদের পর্যবেক্ষণে পাওয়া গেছে যে, আনন্দ রাই এর শেয়ার করা ছবি ৪ বছরের পুরনো। আর সবথেকে বড় ব্যাপার হল এই আহত জওয়ান ভারতীয় সেনার না। এই ছবি ২০১৬ সালে একটি ব্লগে ছাপা হয়েছিল। সেখানে সেনাদের কড়া প্রশিক্ষণের কথা উল্লেখ করা হয়েছিল। আর সেনার প্রশিক্ষণের সময় জওয়ানদের আহত হওয়ার ছবি দেখানো হয়েছিল। ছবিটি রিবার্স ইমেজে সার্চ করলে সমস্ত কিছু জলের মতো সামনে চলে আসে।

যদিও এটাই প্রথম না যে ডঃ আনন্দ রাই এরকম একটি ছবি ছড়িয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করলেন। এর আগে উনি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানিকে নিয়ে একটি মিথ্যে প্রচার করেছিলেন। উনি অভিযোগ করে বলেছিলেন যে, স্মৃতি ইরানি বিরেন্দ্র দেব দীক্ষিত নামে এক সাধুর আশ্রমে প্রসাদ নিতে গেছিলেন। আর ওনার এই মিথ্যেকে প্রমাণিত করার জন্য উনি স্মৃতি ইরানির একটি ছবি ওই সাধুর সাথে ফটোশপ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করেছিলেন।

ওই সাধুর বিরুদ্ধে যৌন অত্যাচারের অভিযোগ উঠেছিল। আর সেই কারণে উনি স্মৃতি ইরানিকে অপদস্ত করতে ওই সাধুর সাথে সম্পর্কের মিথ্যে খবর ছড়ান। উল্লেখ্য, ডঃ আনন্দ রাই ২০১৮ সালে কংগ্রেসের টিকিটে বিধানসভা নির্বাচনে লড়াই করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু দল ওনাকে টিকিট দেয়নি। তবে, টিকিট না পেলেও উনি আগাগোড়াই কংগ্রেসের বড় নেতাদের সাথে সুসম্পর্ক রেখেছেন।

Related Articles

Back to top button