Press "Enter" to skip to content

কংগ্রেস পাচ্ছে না কোনো সদস্য! ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত টার্গেট ছিল ২ লক্ষ, হলো মাত্র ২৬০০

শেয়ার করুন -

কংগ্রেসের সমস্যা শেষ হওয়ার নাম নিচ্ছে না। গোয়তে কংগ্রেসের সদস্যপদ অভিযান মারাত্মকভাবে ব্যর্থ হয়েছে। মিডিয়া রিপোর্টের খবর অনুযায়ী, রাজ্যে কেবল মাত্র ২৬০০ জনই পার্টিতে সদস্যতা নিয়েছেন। ১৫ জানুয়ারির মধ্যে ২ লক্ষ লোককে সদস্য করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছিল। এই খবর সেই সময়ে সামনে এসছে যখন নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (CAA) এর সমর্থনে গত সপ্তাহে চার জন নেতা দল ত্যাগ করেছে।

Sonia Gandhi

কংগ্রেস বর্তমানে একটি অ্যাপের মাধ্যমে গোয়াতে সদস্যতা পরিচালনা করছে। এর অধীনে ভোটার কার্ডসহ লোকজনের অন্যান্য বিবরণ নেওয়া হচ্ছে। এটি ‘শক্তি অ্যাপ’ এর আপগ্রেডেড ভার্সানটির মতো। শক্তি অ্যাপ কংগ্রেসের ডেটা অ্যানালিটিক্স হেড প্রবীণ চক্রবর্তী ২০১৯ সালের সাধারণ নির্বাচনকে সামনে রেখে শুরু করেছিলেন এবং তার থেকে পাওয়া সিট গুলিকে বাড়িয়ে চড়িয়ে দেখানো হয়েছিল। মজার বিষয় হল, এটির আপগ্রেডেড ভার্সানেও পরিসংখ্যানগুলি বাড়িয়ে চড়িয়ে দেখানো হয়েছিল। কংগ্রেসের একটি সূত্র দ্য প্রিন্টকে বলেছে আধিকারিক দিক থেকে সদস্যতার বিষয় ৬০০০ থেকে ৭০০০ পর্যন্ত বলা হচ্ছে কিন্তু বাস্তবে এই সংখ্যাটি ২৬০০ এর কাছাকাছি।

এর আগে চার জন নেতা CAA নিয়ে কংগ্রেসের স্ট্যান্ডের বিরোধিতা করে দল ত্যাগ করেছিল। এর মধ্যে তিনজন নেতা বিজেপির সদস্যপদ গ্রহণ করেছে। এই নেতারা পার্টির উপর নাগরিকত্ব আইনকে নিয়ে জনতা, বিশেষ করে মুসলমানদের ঠকানোর অভিযোগ করেছিল। গত বছরের জুলাইয়ে গোয়ায় কংগ্রেস সবচেয়ে বড় ধাক্কা খেয়েছিল। ১৫ জন বিধায়কের মধ্যে দুই তৃতীয়াংশ, অর্থাৎ ১০ জন ক্ষমতাসীন বিজেপিতে যোগ দিয়েছিল।

কংগ্রেস পার্টি মূলত দেশের সবথেকে পুরানো পার্টি। তবে ২০১৪ সালের পর থেকে কংগ্রেস পার্টির উপর যেন কারোর নজর লেগেছে। কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসা তো দূর, নিজেদের সদস্য ধরে রাখা মুশকিল হয়ে পড়ছে। যদিও বিগত কিছু মাসে কংগ্রেস পার্টি বিজেপিকে টক্কর দিয়ে বেশ উপরে উঠে চলেছে এবং অনেকগুলি রাজ্যে শক্তি পুনরুদ্ধার করেছে।