আন্তর্জাতিকনতুন খবর

আমরা করোনা ভাইরাসের সাথে লড়াই করতে পারব না, ধনী দেশগুলি আমাদের সাহায্য করুক: ইমরান খান

ইউরোপের পর এবার এশিয়ার দেশগুলিতেও করোনা ভাইরাসের প্রকোপ তীব্র হতে শুরু হয়েছে। করোনা ভাইরাস () চীন থেকে উৎপন্ন হয়েছিল এবং ধীরে ধীরে তা ইতালি সহ পুরো বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। চীন ের সাথে বড় সীমান্ত শেয়ার করে কিন্তু এখনও সেভাবে ে ভাইরাস কোপ ফেলতে পারেনি। যদিও আগামী ২ সপ্তাহ ের জন্য খুবই নির্ণায়ক হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এর জন্য করোনার বিরুদ্ধে মোকাবিলা করার গতি বাড়িয়ে দিয়েছে।

তবে শুধু ভারত, চীন নয়, এই ভাইরাস এখন েও প্রবেশ করেছে। ে টেস্টিং এর ব্যাবস্থা তেমন ভালো না থাকার কারণে আক্রান্ত রোগীর সঠিক পরিসংখ্যান সামনে আসতে পারছে না। তবে এখনও অবধি ে প্রায় ২০০ জন করোনা ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হয়েছে বলে ইমরান সরকার দাবি করেছে। এখন লক্ষণীয় বিষয় এই যে, ভারত থেকে যে শিয়া মুসলিমরা ইরান গেছিল তাদের প্রত্যেকের দেহে করোনা ভাইরাস মিলেছে। এখন তাদেরকে ইরানেই রেখে চিকিৎসার ব্যাবস্থা করানো হচ্ছে।

তবে পাকিস্তান থেকেও হাজার সংখ্যায় ইরানে লোকজন গেছিল যাদের কোনো টেস্ট না করিয়েই পাকিস্তানে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। অর্থাৎ পাকিস্তানে যে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ আরো তীব্র হতে পারে তার আশঙ্কা আরো জোরদার হচ্ছে। এর মধ্যেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান পুরো বিশ্বের কাছে সাহায্য চেয়ে বসেছেন। ইমরান খান বলেছেন বিশ্বের ধনী দেশগুলি আমাদের সাহায্য করুক।

 

ইমরান খান হাত জোড় করে বলেছেন আমরা করোনা ভাইরাসের সাথে লড়াই করার অবস্থায় নেই। আমাদের ঋণ মাফ করে দেওয়া হোক। ইমরান খান ইরানের প্রসঙ্গ তুলে বলেন, ইরানের উপর নিষেধাজ্ঞা লাগানো রয়েছে বলেই আজ ইরানের অবস্থা ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। ইমরান বলেছেন আমাদের মতো দরিদ্র দেশগুলি করোনার সাথে লড়াই করতে সক্ষম নয়। ইমরান খান তার বক্তব্য এর সময় ভারতকেও পাকিস্তানের সমতুল্য বলার চেষ্টা করেছেন। যদিও ভারত ভাইরাসের সাথে লড়াই করার জন্য কোনো দেশের সাহায্য চাইনি। উল্টে ভারত চীনকে ১৫ টন মেডিক্যাল সরঞ্জাম দিয়ে সাহায্য করেছে। এমন পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের আসল ভিখারি দশা যে বিশ্বের সামনে প্রকাশ পেয়েছে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

Back to top button
Close