Press "Enter" to skip to content

ভারতে তৈরি প্রথম করোনা ভ্যাকসিনের হিউম্যান ট্রায়াল হল আজ, মানবদেহে দেখা যায়নি কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ এইমসে (AIIMS) আজ থেকে ভারতে (India) বানানো করোনার ভ্যাকসিন (Corona Vaccine) COVAXIN এর মানব পরীক্ষণ শুরু হল। COVAXIN এর প্রথম ডোজ এক ৩০ বছর বয়সী ব্যাক্তিকে দেওয়া হয়েছে। যাকে করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছিল, তাঁর মধ্যে কোন সাইড এফেক্ট দেখা যায়নি। ওই ব্যাক্তিকে দুপুর ১ঃ৩০ এ করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছিল। দুই ঘণ্টার মধ্যে তাঁর শরীরে অস্বাভাবিক কিছু পাওয়া যায় নি। এরপর তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এইমস-এর ভ্যাকসিন বিভাগের প্রধান ডাক্তার সঞ্জয় রায় বলেন, আজ শুধু একজন ব্যাক্তির উপর পরীক্ষণ করা হয়েছে। তাঁকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে ঠিকই, কিন্তু আগামী সাতদিন পর্যন্ত তাঁর উপর বিশেষ নজর রাখবেন ডাক্তাররা। আগামীকাল আরও ছয়জনের উপর এই ভ্যাকসিনের পরীক্ষণ করা হবে বলে জানান তিনি। ডঃ সঞ্জয় রায় বলে, ‘দিল্লীর বাসিন্দা প্রথম ব্যাক্তির দুই দিন আগে পরীক্ষা করা হয়, আর তাঁর শারীরিক অবস্থা সামান্য ছিল। তাঁর মধ্যে অন্য কোন রোগ ছিল না। দুপুর ১ঃ৩০ নাগাদ ইনজেকশনের মাধ্যে ০.৫ মিলিলিটারের প্রথম ডোজ তাঁর শরীরে দেওয়া হয়। এখনো পর্যন্ত কোন খারাপ প্রভাব পড়েনি। দুই ঘণ্টা ডাক্তার তাঁকে চোখে চোখে রাখে। আগামী সাতদিন পর্যন্ত তাঁর দিকে বিশেষ নজর রাখবে ডাক্তাররা।”

ICMR ‘COVAXIN” এর প্রথম এবং দ্বিতীয় পর্যায়ের পরীক্ষার জন্য এইমস সমেত ১২ টি সংস্থাকে বেছে নিয়েছে। প্রথম ভাগে ৩৭৫ জনের উপর এই ভ্যাকসিনের পরীক্ষণ করা হবে। শুধুমাত্রে এইমসেই ১০০ জনের শরীরে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে। সঞ্জয় রায় জানান, দ্বিতীয় পর্যায়ে এইমস আর ১২ টি সংস্থা মিলে মোট ৭৫০ জনের উপর ট্রায়াল করবে। প্রথম পর্যায়ে ভ্যাকসিনের পরীক্ষণ ১৮ থেকে ৫৫ জনের উপর করা হবে। আর এটা দেখা হবে যে, তাঁদের যেন অন্য কোন রোগ না থাকে।

এইমস এর নির্দেশক ডঃ রণদীপ গুলেরিয়া অনুযায়ী, দ্বিতীয় পর্যায়ে ১২ থেকে ৬৫ বছরের ৭৫০ জনের উপর এই ভ্যাকসিনের পরীক্ষা করা হবে। ভারতে তৈরি এই ভ্যাকসিনের সফল পরীক্ষণের আসায় অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে আছে ১৩৩ কোটি ভারতীয়।