নতুন খবরভারতবর্ষ

বিশ্বজুড়ে সুন্নী ও শিয়া মুসলিমরা লড়াই করছে, ভারতকে দেখে বিশ্বের শিক্ষা নেওয়া উচিত: দালাই লামা, বৌদ্ধ ধর্মগুরু।

বিশ্বের সবথেকে প্রাচীন সভ্যতা- ভারতীয় সভ্যতা। ভারত দেশ তাদের ঋষি মুনিদের গবেষণার জন্য বহু সময় থেকে চিকিৎসাশাস্ত্র, বিজ্ঞান, গণিত শাস্ত্রে বিশ্বগুরু ছিল। বিদেশী শক্তি ভারতে প্রবেশ করে ভারতের বিশ্ববিদ্যালয়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করে দিয়েছে। তবে আজও ভারতীয়রা নিজেদের সংস্কৃতির অনেকাংশ বাঁচিয়ে রেখেছে। আজও শান্তি, অহিংসার জন্য ভারত দেশকে দেখে পুরো বিশ্ব শিক্ষা নিতে পারে। তিব্বতের ধর্মীয় নেতা দালাই লামা (Dalai Lama) ভারতীয় প্রাচীন ঐতিহ্যকে দুর্দান্তভাবে প্রশংসা করেছেন।

বৃহস্পতিবার, তিব্বতের আধ্যাত্মিক নেতা তথা ৮৪ বর্ষীয় দালাই লামা বলেছিলেন যে আজকের বিশ্বে ভারতের অহিংসা ও মমত্ববোধের প্রাচীন ঐতিহ্যগুলির প্রয়োজন, যেখানে মানুষ ধর্ম এবং আঞ্চলিক বিরোধের ভিত্তিতে লড়াই করছে। দালাই লামা ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ অ্যাডভান্সড স্টাডি আয়োজিত ইউনিভার্সাল এথিক্সের উপর এস রাধাকৃষ্ণান মেমোরিয়াল লেকচার দিচ্ছিলেন। স্মৃতিসৌধে বক্তৃতা করে তিনি বলেছিলেন যে উচ্চতর নৈতিক শিক্ষার ৩০০০ বছরের পুরানো প্রাচীন শিক্ষার পাশাপাশি আধুনিক শিক্ষা চালিয়ে যাওয়া উচিত।

এর আগে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিংয়ের মধ্যে সাম্প্রতিক বৈঠক প্রসঙ্গে তিব্বতের ধর্মীয় নেতা দালাই লামা প্রশংসা করেছেন। উনি বলেন, যে দুই নেতা অর্থনীতির দিক থেকে খুব ভাল বৈঠক করেছেন। তিনি বলেছিলেন যে দু’দেশের মধ্যে বন্ধুত্ব জরুরি। উভয় দেশের সভ্যতা অনেক প্রাচীন, তাই ভারত ও চীনের মধ্যে সুসম্পর্ক থাকা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। দালাই লামা বলেন, আমি একপ্রকার শরণার্থী, কিন্তু ভারতে আমি যে স্বাধীনতা পায় সেটা আমি উপভোগ করি।

বৌদ্ধ ধর্মগুরু দালাই লামা বলেন, বিশ্বের নানা প্রান্তে আজ শিয়া বনাম সুন্নী মুসলিমদের লড়াই চলছে। কোনো কোনো জায়গায় আহমেদিয়া বনাম সুন্নী মুসলিমদের লড়াই চলছে। দালাই লামা বলেন, এমন পরিস্থিতিতে পুরো বিশ্ব ভারতের শান্তি শৃঙ্খলা দেখে শিক্ষা নিতে পারে। ভারতীয় সমাজে যে উচ্চ মূল্যের শিক্ষা পাওয়া যায় তা পুরো বিশ্বে ছড়িয়ে পড়া আবশ্যক।

Related Articles

Back to top button