Press "Enter" to skip to content

নাগরিকত্ব সংশোধন বিল আসার অর্থ, ভারত আর মুসলিমদের দেশ রইলো না: বললেন মেহবুবা মুফতির মেয়ে ইলতাজা।

শেয়ার করুন -

তিন তালাকের উপর বিল, ধারা ৩৭০ অপসারণ ও রাম মন্দির নির্মাণের পথ পরিষ্কার করার পর এবার মোদী সরকারের পরবর্তী বড় পদক্ষেপটি হ’ল ‘নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল’ (Citizenship Amendment Bill) লাগু করা।  গতকাল মন্ত্রিসভার অনুমোদন পেয়েছে এবং শীঘ্রই সংসদে এটি উপস্থাপন করেছে যাবে। বিরোধী দলগুলি এই বিলের বিরোধিতা করছে। বামপন্থী থেকে শুরু করে তৃণমূল কংগ্রেস সকলেই হাত ধুয়ে এই বিলের বিরোধিতা করতে মাঠে নেমে পড়েছে। জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং পিডিপি সুপ্রিমো মেহবুবা মুফতির (Mehbooba Mufti) মেয়েও এই বিলে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

প্রকৃতপক্ষে, মেহবুবা মুফতীর কন্যা সানা ইলতিজা জাভেদ ‘নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল’ নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে মোদী সরকারের সমালোচনা করেছেন। জানিয়ে দি, মেহবুবা মুফতীর টুইটার অ্যাকাউন্টটি তার মেয়ে ইলতিজা পরিচালনা করেন। ইলতিজা তার মায়ের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে নিজের টুইট করে লিখেছেন যে “ভারত আর মুসলমানদের দেশ রইল না।” অর্থাৎ নাগরিকত্ব সংশোধন বিল অনুযায়ী অমুসলিম শরণার্থীরা ভারতে নাগরিকত্ব পাবে।

কেন্দ্রীয় কেবিনেটের তরফ থেকে ‘নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল’ অনুমোদনের খবরের পর ইলতিজা এই টুইট করেছেন। ইলতিজা এই সংবাদটি পুনরায় টুইট করে তার প্রতিক্রিয়া লিখেছিলেন। লক্ষণীয় বিষয়, মেহবুবা মুফতি জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা অপসারণের পরে ৫ আগস্ট থেকে গৃহবন্দী রয়েছেন।

তবে, এই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি পাস করার পরে, সমস্ত অমুসলিম ধর্মের লোকেরা, অর্থাৎ হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সী এবং খ্রিস্টানদের নাগরিকত্ব অর্জনের জন্য 11 বছর দেশে বাস করা প্রয়োজন হবে না, যা আগে ছিল। এই নতুন বিলটি প্রবর্তনের পরে, নাগরিকদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে কেবলমাত্র 6 বছর ভারতে থাকলেই নাগরিকত্ব পাওয়া যাবে।