Press "Enter" to skip to content

“আমার দুঃখও লাগছে, ভয়ও করছে”- CAA প্রসঙ্গে বললেন দীপিকা পাড়ুকোন।

শেয়ার করুন -

বামপন্থী ছাত্রী ঐশী ঘোষের মাথা ফাটাকে কেন্দ্র করে দেশজুড়ে যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে তা থামার নাম নিচ্ছে না। ঐশী ঘোষের মাথা ফাটায় বুদ্ধিজীবী থেকে বলিউডের সেলিব্রেটিরা পর্যন্ত কান্না কাটি শুরু করে দিয়েছে। অন্যদিকে প্রমীলা বর্মনকে ধর্ষণ করে পুড়িয়ে মারা হয়েছে তা নিয়ে বুদ্ধিজীবী, বলিউড সকলেই চুপ। JNU তে বামপন্থীদের সমর্থন জানানোর জন্য বলিউডের খ্যাতিনামা অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনও (Deepika Padukone) পৌঁছে গেছিলেন। অবশ্য সেটা নিয়েও অনেকে আপত্তি প্রকাশ করেছে। এক সেনা জওয়ান বলেছেন যারা কোনোদিন শহীদ পরিবারের বাড়ি যায় না, তারা আজকাল মাথা ফেটে গেলেও প্রতিবাদ করতে পৌঁছে যাচ্ছে।

এই সমস্থ কিছু বিতর্কের মধ্যে দীপিকা পাড়ুকোন নতুন বিবৃতি দিয়েছেন। দীপিকা পাড়ুকোন বলেছেন যা ঘটেছে তা নিয়ে আমি খুবই ক্রুদ্ধ। এটা আমাদের দেশের ফাউন্ডেশন কোনোদিন ছিল না। দীপিকা বলেছেন আমি দুঃখিত ও ক্রুদ্ধ। এক সংবাদ মাধ্যমের কাছে ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় দীপিকা পাড়ুকোন তার মত প্রকাশ করছেন।

সাংবাদিক দীপিকা পাড়ুকোনকে জিজ্ঞাসা করেন যে, দেশে CAA ইস্যুতে সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধ হচ্ছে। আপনি এর উপর কি প্রতিক্রিয়া দেবেন? উত্তরে দীপিকা বলেন আমরা যেটা বলার ছিল সেটা আমি ২ বছর আগে পদ্মাবত রিলিজ হওয়ার সময় বলেছিলাম। আমি যেটা অনুভব করেছিলাম তা আমি সেই সময়েই বলেছিলেন। এখন আমার ভয় করে এবং কষ্টও পায়।

দীপিকা পাড়ুকোন বলেন, আমাদের দেশের এটা ফাউন্ডেশন ছিল না। JNU এর হিংসা নিয়ে প্রশ্নঃ করলে দীপিকা পাড়ুকোন সরকারের পদক্ষেপ নিয়ে পাল্টা প্রশ্নঃ তোলেন। প্রসঙ্গত জানিয়ে দি, দীপিকা পাড়ুকোন JNU এর হিংসার মধ্যে বামপন্থী ছাত্র ছাত্রীদের সমর্থন করতে পৌঁছে ছিলেন। যদিও অনেকে বলেছেন দীপিকা পাড়ুকোন শুধুমাত্র নিজের সিনেমার প্রচার করার জন্য এটা করেছেন।